বৃষ্টির হাত থেকে ধান বাঁচাতে মেশিনের সাহায্যে ধান কাটছেন চাষীরা

নিজস্ব সংবাদদাতা : মাঠে মাঠে পাকা ধান , এই ধান কাটার সময় বৃষ্টি । সেই বৃষ্টির জল জমিতে জমে যাওয়ার কারনে সমস্যায় পড়েছেন উলুবেড়িয়া মহকুমা এলাকার আমতা দুই নং ব্লকের বিস্তীর্ণ এলাকার কয়েকশো বরো চাষী।

দুদিন যাবৎ দফায় দফায় মুষুলধারে বৃষ্টির জন্য বরো ধানের জমিতে জল জমে গেছে। তাই ধান বাঁচাতে মাঠ নেমে পড়েছে চাষীরা। আমতা দুই নং ব্লকের প্রায় দুই থেকে তিন হাজার হেক্টর জমি জুড়ে বরো ধানের চাষ হয়ে থাকে।

বৈশাখে মাসের প্রথম থেকেই ধান কেটে গোলায় তুলতে শুরু করেন চাষীরা। কিন্তু এবারে লক ডাউনে জেরে সেই কাজে বিলম্ব ঘটে। পাশাপাশি শুরু হয় বৃষ্টি। তাতেই বেশি করে সমস্যার মধ্যে পড়েন চাষীরা। এর উপর তৈরি হয়েছে বঙ্গোপসাগরে গভীর নিন্মচাপ।

তাই আগে থেকেই মাঠের ফসল গোলায় তুলতে জোর তৎপরতা শুরু হয়েছে। চাষীদের এই কাজে সহায়তা দিতে এগিয়ে এসেছে আমতা দুই নং পঞ্চায়েত সমিতি। সমিতির পক্ষ থেকে চাষীদের আগাম সতর্কতার বার্তা দেওয়া হচ্ছে।

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুকান্ত পাল বলেন আমরা ব্লকের সমস্ত বরো চাষীদের বলছি ধান কেটে গোলায় তুলে নিন। তার জন্য পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে সব রকম সহযোগিতা করা হবে। ইতিমধ্যে আমতা দুই নং ব্লকের অমড়াগোড়ী, কাশমূলি, জয়পুর, সহ বিভিন্ন অঞ্চলে মেশিনের মাধ্যমে ধান কাটার কাজ শুরু করা হয়েছে।

সুকান্ত বলেন সরকারী নির্দেশ আমরা চাষীদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছি । যাতে এই খারাপ আবহাওয়ার কারনে বরো চাষ ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। সে জন্য খুব দ্রুততার সাথেই ধান মাঠ থেকে কেটে তোলার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে মেশিন। মাত্র ১৫ থেকে ২০ মিনিটেই এক বিঘে জমির ধান এই মেশিনে কেটে তোলা হচ্ছে ।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা