হাওড়ায় প্রেমিকের উপর এলোপাথাড়ি ব্লেড চালালেন প্রেমিকা, চাঞ্চল্য

নিজস্ব সংবাদদাতা : অপরাধ বলতে মনোমালিন্যের জেরে সম্পর্ক ছেড়ে বেরিয়ে আসতে চেয়েছিলেন যুবক। আর তারই প্রতিশোধ নিতে যুবকের উপর ব্লেড দিয়ে এলোপাথাড়ি আক্রমণ চালানোর অভিযোগ উঠল তাঁর প্রেমিকার বিরুদ্ধে। প্রেমিকার দাদাও তাকে সঙ্গ দিয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার বাঁকড়া এলাকায়। ইতিমধ্যেই সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে প্রেমিকার দাদাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, বাঁকড়ার পেয়াদাপাড়ার বস্ত্র ব্যবসায়ী বছর একুশের শেখ আফসার আলির সঙ্গে মণ্ডলপাড়ার বাসিন্দা এক তরুণীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এই সম্পর্কের কথা জানতে বাকি ছিল না কারও। দিব্যি ঘুরে বেড়াত এই প্রেমিক যুগল। মোবাইলে কথোপকথনও লেগেই থাকত তাদের। তবে কিছুদিন সম্পর্ক ঠিকঠাক চলছিল না। দু’জনের মধ্যে মনোমালিন্য লেগেই ছিল। যদিও কেন মনোমালিন্য লেগে ছিল সে বিষয়টি এখনও স্পষ্ট নয়। প্রেমিক শেখ আফসার আলি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন আর সম্পর্ক রাখবেন না। তা প্রেমিকাকে জানিয়েছিলেন তিনি। আর তাতেই বিপত্তি ঘটে।

প্রেমিকের দাবি, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি স্থানীয় ক্লাবে ছিলেন। ফোন করে ওই তরুণী বটতলায় যুবককে ডেকে পাঠায়। সেখানেই ছিলেন তরুণীর দাদাও। অভিযোগ, বটতলায় যাওয়ামাত্রই তাঁর উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে প্রেমিকার দাদা। প্রেমিকার উপস্থিতিতে ব্লেড দিয়ে বারবার আক্রমণ করে যুবককে। রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তাতেই লুটিয়ে পড়েন তিনি। ঘটনাস্থল ছাড়ে প্রেমিকা ও তার দাদা। ডান হাত এবং বুক থেকে রক্ত ঝরতে দেখে এগিয়ে আসেন স্থানীয়রা। যুবককে উদ্ধার করে স্থানীয় এক বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বুকে পাঁচটি এবং হাতে দশটি সেলাই হয় তাঁর। এই ঘটনায় বাঁকড়া পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযোগ জানিয়েছেন যুবক। ইতিমধ্যেই প্রেমিকার দাদাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা