নিজেদের স্বপ্ন ভঙ্গ করে দুঃস্থ মানুষের পাশে আমতার সাত তরুণ

নিজস্ব সংবাদদাতা : সাতজনের ছোট্ট একটি দল। ওদের প্রত্যেকের মধ্যেই রয়েছে অজানাকে জানবার, অদেখাকে দেখবার গভীর স্পৃহা। আর তার টানেই ওরা কখনো পাড়ি দেয় সান্দাকফুর শীর্ষে আবার কখনও বা হিমাচলের দুর্গম গিরিপথে। প্রতিবছরই এপ্রিল নাগাদ উঁচু নীচু পাহাড়ি পথ অতিক্রম করে আমতার এই সমস্ত তরতাজা প্রাণরা পৌঁছে যায় নিজেদের অভীষ্ট লক্ষ্যে।

এবারও সেই উদ্যোগ নিয়েছিল এই সাত তরুণের সম্মিলিত প্রয়াস ‘সপ্তর্ষী’। ট্রেকিংয়ের জন্য বছরভর অল্প অল্প করে প্রায় লাখখানেক টাকা জমিয়েছিল ওরা। কিন্তু, দেশে করোনার আবির্ভাব ও লকডাউনের দ্বৈত জাঁতাকালে বিদ্ধ হল তাঁদের এবছরের কেদার – বদ্রী ট্রেকিং পরিকল্পনা। তার জেরে ভ্রমণপিপাসু এই যুবকরা সাময়িক দুঃখ পেলেও ভেঙে পড়তে নারাজ।

শুরু হল অন্য লড়াই। আর সেই লড়াই মানুষের স্বার্থে, সমাজের স্বার্থে। সারাবছর ধরে জমানো টাকায় ‘সপ্তর্ষি’র পক্ষ থেকে আমতার প্রায় বিভিন্ন অঞ্চলের প্রায় ১০০ টি দুঃস্থ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হল বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী। এই ভ্রমণ গ্রুপের অন্যতম সদস্য সুমন মান্না জানান, “সোমবার সকালে তাঁদের পক্ষ থেকে চাল, আলু, ডাল, তেল, লবণ তুলে দেওয়া হয়।”

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা