রাজীবের বিরুদ্ধে নদীবাঁধ সংস্কারে দুর্নীতির অভিযোগে সরব উদয়নারায়ণপুরের বিধায়ক

নিজস্ব সংবাদদাতা : তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরই প্রাক্তন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বন সহায়ক পদে দুর্নীতির অভিযোগ করেছিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী। মাস ঘুরতে না ঘুরতেই ফের বিজেপি নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে নদীবাঁধ সংস্কারে দুর্নীতির অভিযোগে সরব হলেন উদয়নারায়ণপুরের বিধায়ক সমীর পাঁজা। আর তা নিয়েই জোর শোরগোল শুরু হয়েছে হাওড়ার রাজনীতিতে।

উল্লেখ্য, প্রায় প্রতিবছর বর্ষাকালে ডিভিসির ছাড়া জলে উদয়নারায়ণপুর, আমতা সহ বিস্তীর্ণ অঞ্চল প্লাবিত হয়। কয়েক লক্ষ মানুষকে চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হয়। তা রুখতে উদ্যোগী হয় রাজ্য সরকার। সেচ দপ্তরকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। আর তাতেই প্রচুর দুর্নীতি করেছেন প্রাক্তন সেচমন্ত্রী, এমনটাই অভিযোগ করেছেন গ্রামীণ হাওড়ার এই বিধায়ক।

তাঁর অভিযোগ,”মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে বিশ্বাস করে দায়িত্ব দিয়েছিলেন। কিন্তু, তাঁর অবজ্ঞা, অবহেলায় অনেক কাজ বাকি রয়ে গিয়েছে। তাঁর কাজে অনেক অসঙ্গতি রয়েছে।” তিনি আরও বলেন, “যে অর্থে কাজটি করা সম্ভব, তিনি তার থেকে বেশি অর্থে কায়দা করে প্ল্যান বানিয়েছিলেন। এতে নিশ্চিত দুর্নীতির গন্ধ আছে। মুখ্যমন্ত্রী তা বুঝতে পেরে গোপনে খোঁজ নেন। অসঙ্গতি বুঝতে পারায় মুখ্যমন্ত্রী তাঁকে সরিয়ে দেন।” রাজ্যের প্রাক্তন সেচমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তদন্তের আর্জি জানিয়েছেন উদয়নারায়ণপুরের বিধায়ক।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা