হাওড়া জেলায়, বুলবুল ঝড়ের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের আর্থিক সহায়তা রাজ্য সরকারের

নিজস্ব সংবাদদাতা : হাওড়া জেলার বুলবুল ঝড়ের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের পাশে দাঁড়াল রাজ্য সরকার। ক্ষতিগ্রস্ত চাষীদের ক্ষতিপূরণ হিসেবে প্রায় ৩৪ কোটি টাকা বরাদ্দ করল রাজ্য সরকার। বিভিন্ন ব্লক থেকে আর্থিক সহায়তার জন্য ফর্ম দেওয়া শুরু হবে আগামী সোমবার। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে হাওড়া জেলায় এবারে ধান চাষ হয়েছিল প্রায় ৬২ হাজার হেক্টর জমিতে। পাশাপাশি সবজি চাষ হয়েছিল প্রায় ৫ হাজার হেক্টর জমিতে। প্রায় ৪০ হাজার হেক্টরের বেশি জমিতে বুলবুলের প্রভাব পড়েছিল। সবজি চাষে ও প্রভাব পড়েছিল ব্যাপক। পরে কৃষি দফতরের হিসেব অনুযায়ী মোট ২৯ হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে বলে জানানো হয়েছিল। রাজ্য সরকার ধানের ক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্থের পরিমাণ ধরেছে প্রায় ২৬ হাজার হেক্টর জমির । আর সবজি ও পান মিলিয়ে প্রায় ৩ হাজার হেক্টর জমির ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। হাওড়া জেলা কৃষি অধিকর্তা বিকাশ বিশ্বাস জানান সরকার ক্ষয়ক্ষতির জন্য ৩৩ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করেছে।

কৃষি দফতর সূত্রে জানা গেছে জেলার ১৪টি ব্লকের মধ্যে সবথেকে বেশি ক্ষতি হয়েছে শ্যামপুর ১ ও ২ ব্লক, বাগনান ১ ও ২ ব্লক, আমতা ১ও ২ ব্লক উলুবেড়িয়া ১ ও ২ ব্লক এবং উদয়নারায়ণপু ব্লকে। অন্যান্য ব্লকেও কমবেশি ক্ষতি হয়েছে। এই ব্লকগুলো নদী সংলগ্ন হ‌ওয়ায়, ওই ব্লক গুলো তে ক্ষতির পরিমাণ বেশি। কৃষি দফতরের কর্তারা আরও জানান বুলবুলের প্রভাবে টানা কয়েক দিন বৃষ্টি হয়। এর ফলে জমিতে জল জমে যায়। তার উপর ঝোড়ো হাওয়ায় ধান পাকা ধান জমিতে লুটিয়ে পড়ে। যে কারণে ক্ষতির পরিমাণ এতটা বেশি। উদয়নারায়ণপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুলেখা পাঁজা, আমতা ২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুকান্ত পাল, শ্যামপুর ২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি জুলফিকার আলি মোল্লা বাগনান ১ ও ২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি পঞ্চানন দাস ও মৌসুমী সেন বলেন সরকার মানুষের পাশে রয়েছে। শীঘ্রই ক্ষতিপূরণের আবেদন পত্র দেওয়া হবে কৃষকদের।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা