চলবে লোকাল ট্রেন, কিন্তু উলুবেড়িয়ার ফুলেশ্বর স্টেশনে উধাও ওভারব্রিজ শেড, পরিকাঠামো নিয়ে প্রশ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা : গত ২৫ শে মার্চ থেকে দেশের অন্যান্য রাজ্যের মতো বাংলাতেও সমস্ত রকমের যাত্রবাহী ট্রেন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। স্টাফ স্পেশাল ট্রেন চললেও তার সংখ্যাটা হাতেগোনা। ধাপে ধাপে দূরপাল্লার ট্রেন চালু করা হলেও বাংলায় কবে থেকে লোকাল ট্রেন পরিষেবা পুনরায় চালু করা হবে তা নিয়ে দীর্ঘ ধোঁয়াশা ছিলই। অবশেষে রেলের সাথে রাজ্যের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় আগামী বুধবার থেকে বাংলায় লোকাল ট্রেন চালু করা হবে। রেলের তরফে লোকাল ট্রেন চালানোর প্রস্তুতি শুরু হলেও দক্ষিণ-পূর্ব রেলের হাওড়া-খড়্গপুর শাখার বেশ কিছু স্টেশনের বর্তমান পরিকাঠামো নিয়ে প্রশ্নচিহ্ন থেকে যাচ্ছে।

লকডাউনের মাঝেই শতাব্দীর অন্যতম বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের দানবীয় দাপটে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল হাওড়া – খড়্গপুর শাখার বেশ কয়েকটি স্টেশন। আম্ফানের সে-ই গভীর ক্ষত সারিয়ে এখনো স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে পারেনি বেশ কিছু স্টেশন। অন্তত উলুবেড়িয়া ও ফুলেশ্বর স্টেশনে গিয়ে সেই ছবিই ধরা পড়ল। দেখা গেল, প্ল্যাটফর্ম চত্বর বেশ পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন থাকলেও উলুবেড়িয়া ষ্টেশনের ১ নং প্লাটফর্ম থেকে ৫ নং প্লাটফর্মে যাওয়ার ওভারব্রিজের শেডের অধিকাংশ জায়গার টিন উধাও।

এমনকি ফুলেশ্বর ষ্টেশনের ৩ নং প্লাটফর্মেরও শেডের বেশ কয়েকটি টিন নেই। নিত্যযাত্রীরা জানান, ঝড়ে শেড উড়ে যাওয়ার পর থেকে আর মেরামত না করায় এখনোও জায়গাগুলি ফাঁকা পড়ে আছে। যাত্রী নিরাপত্তা ও স্বাচ্ছন্দের কথা মাথায় রেখে শেডগুলি দ্রুত মেরামত করার দাবিও জানিয়েছেন নিত্যযাত্রীরা। তাঁদের মতে, দ্রুত ওভারব্রিজের শেড মেরামত না করলে ট্রেন ধরতে আসা যাত্রীদে বেশ সমস্যায় পড়তে হতে পারে। এই প্রসঙ্গে দক্ষিন-পূর্ব রেলের আধিকারিকদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তাঁরা জানান, “যেসব ষ্টেশনে এইসব সমস্যা আছে আমরা ইতিমধ্যেই সেগুলি মেরামত করা শুরু করেছি।” খুব দ্রুত এইসমস্ত সমস্যা মিটে যাওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন রেলের আধিকারিকরা।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা