আমতার একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের ক্যাশ কাউন্টার থেকে চুরি লক্ষাধিক টাকা, গ্রেফতার এক

নিজস্ব সংবাদদাতা : অভিনব কায়দায় ব্যাঙ্কের ক্যাশ কাউন্টার থেকে এক লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা চুরি করে পালিয়ে গিয়েছিল এক যুবক। ব্যাঙ্কের সি সি ক্যামেরায় ধরা পড়েছিল সেই চুরির ঘটনা। সোমবার পুনরায় চুরি করতে ব্যাঙ্কে ঢুকলে তাকে চিনতে পেরে ধরে ফেলে ব্যাঙ্কের কর্মীরা। পরে পুলিশ এসে তাকে গ্রেফতার করে। ঘটনাটি ঘটেছে আমতা থানা এলাকার একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের শাখায়। জানা গেছে গত ৪ঠা অক্টোবর দুপুরে এই ব্যাঙ্কে যায় জয়পুর থানা এলাকার বোয়ালিয়া গ্রামের বাসিন্দা সাহেব দাস(২৮)। ক্যাশিয়ারের অনুপস্থিতির সুযোগে একটি পাঁকাটির মাথায় সেফটিপিন আটকে ক্যাশ কাউন্টার থেকে এক লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা বের করে ব্যাগের মধ্যে ভরে নিয়ে ব্যাঙ্ক থেকে বেরিয়ে যায়। এদিন ব্যাঙ্ক বন্ধের আগে টাকার হিসাব না মেলায় ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ সি সি ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করতেই ধরা পড়ে অভিনব কায়দায় এই চুরির ঘটনা।

তার পরেই আমতা থানায় চুরির অভিযোগ দায়ের করা হয় ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে। ঘটনার তদন্তে নেমেও অভিযুক্তের কোনো খোঁজ পায়নি। সোমবার দুপুরে পুনরায় এই ব্যক্তি ব্যাঙ্কে ঢুকলে, তাকে চিনতে পারে ব্যাঙ্কের কর্মীরা। তাকে আটকে রেখে খবর দেওয়া হয় আমতা থানায়। পুলিশ সুত্রে জানা গেছে ধৃত যুবকের কাছ থেকে কিছু টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। জেরা করে বাকি টাকা উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। মঙ্গলবার সাহেব দাসকে উলুবেড়িয়া মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক তার তিন দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন। আদালতে নিয়ে যাওয়ার সময় অভিযুক্ত চুরির কথা স্বীকার করে বলেন বি এল আর ও অফিসের বাইরে ফাইফরমাস খাটতাম। সেইভাবে কোনো উপার্জন না থাকায় বাজারে অনেক টাকা দেনা হয়ে গিয়েছিল। সেই নিয়ে সংসারে অশান্তি লেগেই থাকে। তাই দেনা মেটাতে টাকা চুরি করার পরিকল্পনা করি। সেই উদ্দেশ্যে দূর্গা পূজার ষষ্ঠীর দিন দুপুরে ব্যাঙ্কে ঢুকি। ল্যাঞ্চের সময় ক্যাশিয়ার ক্যাশ কাউন্টার থেকে বেরিয়ে গেলে পাঁকাটির মাথায় সেফটিপিন আটকে টাকা বের করে নিয়ে সেখান থেকে চলে যাই। সেই টাকা দিয়ে কিছু দেনা শোধ করার পর হাত খালি হয়ে যাওয়ায় আবার সোমবার ব্যাঙ্কে ঢুকেছিলাম। ব্যাঙ্কের কর্মীরা চিনে ফেলে‌ পুলিশকে খবর দেয়।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা