উচ্চমাধ্যমিকে নাম্বারের বন্যা, রেকর্ড পাশের হার

নিজস্ব সংবাদদাতা : করোনার জেরে আগেই বাতিল হয়েছিল এবছর উচ্চমাধ্যমিকের বেশ কিছু বিষয়ের পরীক্ষা৷পরীক্ষা বাতিল হলেও সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলিতে অভ্যন্তরীণ মূল্যায়নের ভিত্তিতে উচ্চমাধ্যমিকের সামগ্রিক ফলাফল ঘোষণা করল উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ৷আজ বিকেলে সাংবাদিক বৈঠক করে ফলাফল ঘোষণা করেন সংসদ সভাপতি মহুয়া ঘোষ। মহুয়া দাস জানান, মহামারীর জেরে ১৪টি বিষয়ে পরীক্ষা বাতিল করতে বাধ্য হয়েছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ৷ তারপর ছিল দীর্ঘ প্রক্রিয়া৷ উত্তরপত্র মূল্যায়ন ও তার সংগ্রহ করা ছিল বড় চ্যালেঞ্জ৷ সেই সমস্ত চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে আজ ফল প্রকাশ করা হচ্ছে৷সরকারি সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি পাওয়ায় এবার উচ্চমাধ্যমিকে ছাত্রীদের সাফল্যের হার বেশি বলেও জানানো হয়েছে৷ করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে উত্তরপত্র রিভিউ করার ফি বেশ খানিকটা কমানো হয়েছে৷এখন উত্তরপত্র রিভিউ করতে পড়ুয়াদের ৭৫ টাকা গুনতে হবে। স্কুটিনি করতে গেলে দিতে হবে ৫০ টাকা৷সংসদ সভাপতি জানান, উচ্চমাধ্যমিকে পাশের হার ৯০.১৩ শতাংশ৷ সর্বোচ্চ নম্বর উঠেছে ৫০০-র মধ্যে ৪৯৯৷ ছাত্রদের পাশের হার ৯০.৪৪ শতাংশ৷ ছাত্রীদের পাশের হার ৯০ শতাংশের বেশি৷ এবছর উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসে ছিলেন ৭ লক্ষ ৬১ হাজার ৫৮৩ জন৷ পাশ করেছেন ৬ লক্ষ ৮০ হাজার ৫৭ জন পরীক্ষার্থী৷ ৯০ শতাংশের বেশি নম্বর পেয়েছেন ৩০ হাজারের বেশি পড়ুয়া৷ ৮০ থেকে ৮৯ শতাংশ নম্বর পেয়েছেন ৮৪ হাজার ৭৪৬ জন৷ এই প্রথম ফার্স্ট ডিভিশনের নম্বর বা ৬০ শতাংশের বেশি পেয়েছেন ৫০ শতাংশ পড়ুয়া৷ ৯০ শতাংশের বেশি পাসের হার মাধ্যমিক তো দূরের কথা, উচ্চমাধ্যমিকে নজিরবিহীন৷ কেন্দ্রীয় বোর্ডেও তা দুর্লভ৷ সরকারি ভাবে মেধাতালিকা প্রকাশ না হলেও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার নম্বর হিসাব বলছে, করোনা আবহে নম্বর বিন্যাসে কতটা উদারতা দেখিয়েছে সংসদ৷

আগামী ৩১ জুলাই পর তা ধাপে ধাপে অভিভাবক কিংবা পড়ুয়া নিজে এসে মার্কশিট ও সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে পারবে বলেও জানিয়েছেন সভাপতি৷ এবার পরীক্ষায় বসেছিলেন ৬ লক্ষ ৬১ হাজার ৫৮২ জন৷ পাসের হার ৯০.১৩ শতাংশ৷ গত বছরের তুলনায় এবার পাসের হার সব থেকে বেশি৷ ছাত্রীদের পাসের হার ৯০ শতাংশ৷ ছাত্রদের পাসের হার ৯০.৪৪ শতাংশ৷ এদিন সভাপতি জানান, এবার কলকাতা, পূর্ব মেদিনীপুর ভালো রেজাল্ট করেছে৷ ভালো ফলাফল করেছে পশ্চিম মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, ঝারগ্রাম, নদীয়া, মুর্শিদাবাদ, কালিংপং, উত্তর ২৪ পরগনা৷ ফল, প্রকাশ করা হলেও ২০২১ সালের পরবর্তী উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সূচি এবারও জানাতে পারেনি সংসদ৷

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা