বাউড়িয়ায় বন্ধ ফেরি চলাচল, বিপাকে কয়েক হাজার যাত্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা : নদীতে জোয়ারের জলের তোড়ে পল্টুন খুলে যাওয়ায় বন্ধ হয়ে রয়েছে বাউড়িয়া ফেরিঘাট।এই ফেরি সার্ভিসের সাহায্যে উলুবেড়িয়ার বাউড়িয়া থেকে দক্ষিণ ২৪ পরগণার বজবজের মধ্যে যাতায়াত করা যায়। মঙ্গলবার থেকে বন্ধ রয়েছে এই ফেরি সার্ভিস। ফলত বিপাকে পড়ছেন কয়েক হাজার যাত্রী। হুগলি নদী পারাপারের জন্য লোকেরা বাধ্য হচ্ছেন বিকল্প পথে ভুটভুটিতে করে নদী পারাপার করতে ।

বাউড়িয়া ফেরিঘাট থেকে কিছুটা দূরে থানার কাছে এই ফেরিঘাট টি রয়েছে। সেই ঘাট দিয়েই লোকেরা নদী পারাপার করছেন। ভুটভুটির সাহায্যে পারাপার করতে গিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের। লোক সংখ্যা বেশি হওয়ায় যাত্রীদের লম্বা লাইন পড়ছে সেখানে।  লোকেরা  দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে বাধ্য হচ্ছেন। অভিযোগ কখনো কখনো ২-৩ ঘন্টা ধরেও অপেক্ষা করতে হচ্ছে এই সমস্ত যাত্রীদের। অনেকে সময় মতো কাজে যেতে পারছেন না। আবার অনেকে সময়মতো গন্তব্যস্থলে না যেতে পেরে ফিরে যেতে বাধ্য হচ্ছেন।

ফলে ক্ষোভ বাড়ছে যাত্রীদের মধ্যে। ফেরিঘাট ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে সোমবার রাতে জোয়ারের সময় প্রবল স্রোতে জেটির সঙ্গে বাঁধা থাকা পল্টুনটির লোহার শিকল ছিঁড়ে যায়। ফলে জেটি থেকে পল্টুন আলাদা হয়ে যায়। গ্যাঙওয়ে নির্দিষ্ট জায়গা থেকে সরে যায়। ফেরি সার্ভিসের অযোগ্য হয়ে পড়ে। ফলে  ফেরি সার্ভিস বন্ধ করে দেন কতৃপক্ষ। অভিযোগ প্রায় ৩৬ ঘন্টা কেটে গেলেও তার সারানো হয়নি। হুগলি নদী জলপথ পরিবহন সমবায় সমিতির তরফে বলা হয়েছে  ফেরিঘাট পরিদর্শনে গিয়েছে ইঞ্জিনিয়ারদের দল।

 সারানো কাজ শীঘ্রই শুরু হয়ে যাবে। সার্ভিস ও চালু হয়ে যাবে। স্বপন মাইতি নামে এক যাত্রী জানান বিশেষ কাজে গতকাল বজবজ যাওয়ার জন্য গিয়েছিলাম। কিন্তু ফিরে আসতে বাধ্য হয়। আজ বুধবার ও গিয়েছিলাম। লাইন দেখে ফিরে আসতে বাধ্য হ‌ই। স্থানীয়দের অভিযোগ এখানে বারবার ফেরি ঘাট ভেঙে যায়। সমস্যায় পড়তে হয় যাত্রীদের। তাদের দাবি ঘাট শক্ত পোক্ত করা হোক। সমস্যার স্থায়ী সমাধান করা হোক।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা