উলুবেড়িয়ায় টোটো বন্ধের নির্দেশ প্রশাসনের, নির্দেশ প্রত্যাহারের দাবিতে রাস্তায় টোটো চালকরা

নিজস্ব সংবাদদাতা : উলুবেড়িয়া শহরের প্রধান রাস্তা ওটি রোড। সেই রাস্তা দিয়ে টোটো বন্ধ করার নির্দেশ জারি করে প্রশাসন। সকাল থেকেই বন্ধ হয়ে যায় এই রাস্তায় চলাচল। তারপরই এই নির্দেশ প্রত্যাহারের দাবিতে রাস্তায় নামে কয়েকশো টোটো চালক। তারা উলুবেড়িয়া কালী বাড়ির কাছ থেকে একটি মিছিল করে উলুবেড়িয়া পৌরসভা সামনে জড়ো হয়। তাদের দাবি এই রাস্তায় যদি অটো চলতে পারে তাহলে টোটো কেন চলবে না? টোটো চালু করার দাবিতে তারা পুরসভার সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। পরে পুরসভার পক্ষ থেকে এই নির্দেশ স্থগিত রাখার ঘোষণা করার পরেই মিটে যায় সমস্যা। উল্লেখ্য উলুবেড়িয়া শহরের মাঝখান দিয়ে চলে গিয়েছে সদাব্যস্ত ওটি রোড।

এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করে বেশ কয়েকশ টোটো ও অটো। এই দুইয়ের দাপটে নিত্যদিন তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয় শহর জুড়ে। এই যানজট কাটাতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। তার মধ্যে অন্যতম ছিল সকাল ন’টা থেকে দুপুর বারোটা এবং বিকেল তিনটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত উলুবেড়িয়া শহরে কোনো ভারী যান ঢুকতে পারবে না। পাশাপাশি শহরের প্রধান রাস্তা অর্থাৎ ওটি রোডে কোনো টোটো চলাচল করবে না। কয়েকদিন এই বিষয়ে প্রশাসনের পক্ষ থেকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শহরের প্রধান রাস্তায় টোটো বন্ধ করে দেয়া হয়। প্রশাসনের এই সিদ্ধান্ত ঘোষণার পরই বিক্ষোভে ফেটে পড়ে টোটো চালকরা। টোটো বন্ধ রেখে তারা পুরসভার সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। এরপরই পুলিশ-প্রশাসন ও ট্রাফিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠকে বসেন পুরসভার চেয়ারম্যান অজয় দাস। এরপরই প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই নির্দেশ স্থগিত রাখার কথা জানানোর পর মিটে যায় বিক্ষোভ।

উলুবেড়িয়া থানার আইসি কৌশিক কুন্ডু টোটো চালকদের উদ্দেশ্যে বলেন আপাতত আপনারা টোটো চালান। দুদিন পর প্রশাসনের উচ্চ পর্যায়ের আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠকের মাধ্যমে সমাধান সূত্র বের করা হবে। এক টোটো চালক উত্তম পাল বলেন উলুবেড়িয়া শহরে বেশ কয়েকটি রুট মিলিয়ে প্রায় ৫০০ টি টোটো চলাচল করে। ওটি রোড দিয়ে যাতায়াত করলে তারা ভালো প্যাসেঞ্জার পান। কিন্তু প্রশাসন যদি এই রাস্তায় টোটো চালানো বন্ধ করে দেয় তাদের রুজি রুটি চলে যাবে। আরেকটু চলক শেখ রহমান বলেন ঋণ করে টোটো কিনেছি, তাই দিয়ে সংসার চলে। নতুন নির্দেশ এর ফলে ওটি রোডে টোটো না উঠতে দিলে যাত্রী পাবোনা। খুব সমস্যায় পড়ে যাব। উলুবেড়িয়া পুরসভার চেয়ারম্যান অভয় দাস ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন শহরকে যানজট মুক্ত করতে কিছুদিন আগে উলুবেড়িয়া মহকুমা শাসকের দপ্তরে একটি বৈঠক থেকে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছিল। পরীক্ষামূলক ভাবে সেগুলি কার্যকর করতে গিয়ে কিছু সমস্যা দেখা গিয়েছে।আমরা প্রশাসন বলেছি প্রচারকদের ইউনিয়নের লোকজনকে নিয়ে বৈঠকের মাধ্যমে সমাধান সূত্র বের করতে।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা