পুজোয় গান বেঁধে মন ছুঁলেন আমতার মহুয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক : আকাশে নীল মেঘের ভেলা, নদীর পাড়ে কাশের বন জানান দিচ্ছে বাঙালির প্রাণের পুজো আসছে। প্রকৃতি তার রূপে ‘উমা’র আগমনী বার্তা দিলেও অন্যান্য বছরের নিরিখে এবার পুজো কোথাও যেন ছন্দহীন। করোনা আবহে দাঁড়িয়ে এবার পুজো হলেও আয়োজন নামমাত্র। লক্ষ্য-কোটি বাজেটের পুজো কমিটিগুলোও কোনোরকমে পুজো করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু, থেমে নেই শিল্পীরা। নিজ সৃষ্টিসম্ভারের ডালি নিয়ে শ্রোতাদের দ্বারে হাজির শিল্পীরা। সেরকমই একজন আমতার মহুয়া ব্যানার্জী। করোনা পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়েও অন্যান্য বছরের মতোই পুজো উপলক্ষ্যে বেশ কিছু গান গাইলেন বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী মহুয়া ব্যানার্জী।

গ্রামীণ হাওড়ার আমতার মেয়ে মহুয়া। আমতায় পড়াশোনা, সেখানেই বড়ো হয়ে ওঠা। মা’য়ের কাছেই সঙ্গীত সাধনায় হাতেখড়ি। তারপর নিজ প্রতিভা ও নিরলস সাধনাকে পাথেয় করে শিল্পী হিসাবে নিজেকে সমাজের বুকে প্রতিষ্ঠিত করা। প্রতিবছরই পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন গান বাঁধেন এই শিল্পী। এবারও তার ব্যতিক্রম হল না। গত ১০ ই সেপ্টেম্বর শিল্পীর কন্ঠে মুক্তি পেয়েছে ‘বধুঁয়া রে’। এর পাশাপাশি, আগামী ১৫ ই সেপ্টেম্বর নিজের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকে নিজের কন্ঠে প্রকাশ করতে চলেছেন জনপ্রিয় নজরুল গীতি ‘শুকনো পাতার নূপুর পায়ে’। মহালয়ার দিন মুক্তি পাচ্ছে আগমনী গান ‘জাগো আঁধারের দূর্গা’। মহুয়ার সাথে সাথে এই গানে গলা মিলিয়েছেন উদীয়মান বেশ কিছু শিল্পী। অবশ্য এবারের সবচেয়ে বড়ো চমক মহুয়ার কন্ঠে ‘বাজলো তোমার আলোর বেনু’। কালজয়ী শিল্পী সুপ্রীতি ঘোষকে শ্রদ্ধা জানাতে কোলকাতার একটি স্বনামধন্য মিডিয়া হাউস একটি ডকুমেন্টারি বানাচ্ছে। সেই ডকুমেন্টারিতেই মহুয়া ব্যানার্জীর কন্ঠে শোনা যাবে এই কালজয়ী আগমনী সঙ্গীত।

শিল্পী মহুয়া ব্যানার্জীর কথায়, “করোনা আমাদের অনেক কিছু শিখিয়েছে। করোনা শিখিয়েছে বাড়ির চার দেওয়ালের মধ্যে থেকেই কীভাবে একটা গান বাঁধা যায় কিমবা কীভাবে একটা লাইভ কনসার্ট করে অগণিত শ্রোতার দ্বারে পৌঁছে যাওয়া যায়।” মহুয়া জানান, “বেশ কয়েকবছর ধরেই পুজোয় বিভিন্ন নতুন গান গাই। এবারও বেশ কিছু গান গাইলাম।” বিগত বেশ কয়েক বছর ধরেই নিজের গানের ডালি নিয়ে আমেরিকায় পাড়ি দেন আমতা রামসদয় কলেজের এই প্রাক্তনী। এবারও তাঁর সেই প্রস্তুতি সাড়া হয়ে গিয়েছিল। ভিসাও হয়ে গিয়েছিল। মহুয়ার কথায়, “করোনার জেরে এবার বিদেশ সফর বাতিল করতে হয়েছে। কিন্তু, পুজোর ক’টা দিন গান নিয়েই কাটবে। কোলকাতার বিভিন্ন বড়ো পুজো কমিটিগুলো ডিজিটাল লাইভ কনসার্টের আয়োজন করেছে। সেখানে ইতিমধ্যেই আমন্ত্রণ পেয়েছি।”

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা