রিয়ান্সির জন্মদিনে শীতার্ত অসহায় মানুষকে কম্বল প্রদান আমতার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার

নিজস্ব সংবাদদাতা : কখনো সাধারণ মানুষের মধ্যে পরিবেশ সচেতনতার বার্তা দিতে বাজারে গিয়ে তুলে দিয়েছেন পরিবেশবান্ধব ব্যাগ। আবার কখনো বা ইটভাটার প্রান্তিক শিশুদের মাঝে আনন্দকে ভাগ করে নিয়েছেন। এভাবেই প্রত্যেক বছর একমাত্র মেয়ের জন্মদিনে বিভিন্ন সামাজিক কর্মসূচি গ্রহণ করেন গ্রামীণ হাওড়ার বাগনানের আগুন্সী গ্রামের শিক্ষক দম্পতি।

এবার পরিস্থিতি ভিন্ন৷ তাই বাইরে কোথাও নয়; নিজেদের পাশ্ববর্তী অঞ্চলের অসহায় মানুষের মধ্যে নিজের মেয়ের জন্মদিনকে ভাগ করে নিলেন বাগনান-১ ব্লকের রাকেশ মন্ডল ও মল্লিকা আচার মন্ডল। মঙ্গলবার এই শিক্ষক দম্পতির একমাত্র কন্যা রিয়ান্সির চার বছরের জন্মদিন উপলক্ষ্যে বাগনান-১ ব্লকের পূর্ণাল, ভূঁয়েড়া, নতীবপুর ও আমতা-১ ব্লকের উদং ও ফতেপুর গ্রামের প্রায় ৩৫ জন অসহায় মানুষের বাড়িতে গিয়ে কম্বল তুলে দিল আমতার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘স্বপ্ন দেখার উজান গাঙ’-এর সদস্যরা।

এদিন সকালে রিয়ান্সি তার বাবা ও সংশ্লিষ্ট স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যদের সাথে নিজে হাতে সরস্বতী ভৌমিক, গোবিন্দ সিং, সেখ আনসারদের হাত কম্বল তুলে দেয়। রিয়ান্সির বাবা পেশায় শিক্ষক রাকেশ মন্ডল বলেন, “ছোটো থেকেই মেয়ের মধ্যে সামাজিক ও মানবিক চেতনা গড়ে তোলার লক্ষ্যেই এই পদক্ষেপ। সারাবছরই এই সংগঠন মানব সেবায় নিয়োজিত থাকে। আমিও সংগঠনের একজন সদস্য। তাই মেয়ের জন্মদিনে আমাদের সংগঠনের মাধ্যমেই শীতার্ত অসহায় মানুষের দ্বারে পৌঁছে যাওয়ার চেষ্টা করলাম।” এদিন ছোট্ট রিয়ান্সিকে দু-হাত ভরে আশীর্বাদ করেন সফি মিদ্দ্যে, আল্পনা মান্নারা।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা