থ্যালাসেমিয়া দিবসে উলুবেড়িয়ায় সচেতনতার মিছিল, উঠল একাধিক দাবি

নিজস্ব সংবাদদাতা : থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত বা বাহক হওয়া মানেই অবহেলার নয়। সচেতনতাই পারে আগামীর পৃথিবীকে থ্যালাসেমিয়া মুক্ত করতে। এই বার্তা নিয়েই রবিবার বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস উপলক্ষ্যে উলুবেড়িয়া শহরে মিছিল করল ব্লাড ডোনার হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ নামক একটি সংগঠন। এদিন সকালে উলুবেড়িয়া স্টেশন চত্বর থেকে শুরু হয় মিছিলটি। উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতাল চত্বরে গিয়ে মিছিলটি শেষ হয়। গ্রামীণ হাওড়ার রক্তদান আন্দোলনের কর্মীদের পাশাপাশি উলুবেড়িয়া মহকুমা এলাকার প্রায় ৩০ জন থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশু, কিশোর, কিশোরী ও তাদের অভিভাবকরাও এই মিছিলে পা মেলান। মিছিল শেষে উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতাল চত্বরে একটি সভা ও থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশু ও তাদের পরিবারের সদস্যদের সাথে একটি প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। এদিনের মিছিল থেকে থ্যালাসেমিয়া পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করতে আইন প্রণয়ণের দাবি তোলা হয়। বিস্তারিত জানতে নীচে পড়ুন…

পাশাপাশি, সমস্ত সরকারি ব্লাড সেন্টারে ব্লাড কম্পোনেন্ট সেপারেটর মেশিনের ব্যবস্থা, প্রতি জেলায় সরকারি ব্যবস্থাপনায় ভ্রাম্যমান রক্তদান শিবিরের জন্য আধুনিক ভলভো বাস সহ একাধিক দাবি রাখেন শতাব্দী বেরা, কুমারেশ মান্না, কাকলী মান্নারা। পাশাপাশি, রক্তের অভাবে যেন থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত নিশা ডল, কওসের, মনিরুল, হাসানুরদের মৃত্যুর মত আর কোনো মৃত্যু না হয় সেই দাবি এদিন জোরালভাবে সওয়াল করেন রক্তযোদ্ধারা। সংস্থার সম্পাদক শাশ্বত পাড়ুই জানান, একদিকে থ্যালাসেমিয়ার সচেতনতা সম্পর্কে বার্তা দেওয়া, অন্যদিকে ছোট্টো ছোট্টো ফুলের কুঁড়িদের বাঁচার অধিকার সুনিশ্চিত করার দাবিতেই এই মিছিল। মিছিল ও সভার পাশাপাশি এদিন ব্লাড ডোনার হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপের উদ্যোগে উলুবেড়িয়ার একটি ব্লাড ব্যাঙ্কে গিয়ে থ্যালাসেমিয়া শিশুদের জন্য বেশ কয়েকজন যুবক-যুবতী রক্তদানও করেন।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা