বাগনানে বিজেপির ডাকে চলছে ১২ ঘন্টার বন্ধ, পাল্টা তৃণমূলের মিছিল, মোতায়েন প্রচুর পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা : বাগনানে গুলিবিদ্ধ বিজেপি নেতা কিঙ্কর মাঝির মৃত্যুর প্রতিবাদে বিজেপির ডাকে বৃহস্পতিবার বাগনানে চলছে ১২ ঘন্টার বন্ধ। সকাল থেকে জাতীয় সড়ক সংলগ্ন এলাকায় দোকানপাট সেভাবে না খুললেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে বাগনান স্টেশন চত্বর, কলেজ চত্বরে দোকানপাট খুলতে শুরু করেছে বলে জানা গেছে।

কোনোরকম অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশের পক্ষ বাগনান জুড়ে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। বাগনান-শ্যামপুর রোডের প্রবেশপথে পুলিশের পক্ষ থেকে চেকিং চালানো হচ্ছে বলে জানা গেছে। বিজেপির ডাকা বন্ধকে ব্যর্থ করতে সকাল থেকেই পথে নেমেছেন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকরা। সকাল থেকেই বাগনানের বেশ কিছু জায়গায় দলীয় পতাকা নিয়ে মিছিল করেন তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা। ব্যবসায়ীদের দোকান খোলার আবেদন জানান তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা।

উল্লেখ্য, মহাষ্টমীর দিন রাতে বাগনানের চন্দনাপাড়ার কাছে নিজের বাড়ির সামনে গুলিবিদ্ধ হন বিজেপির বাগনান ৫ নং মন্ডলের সহ-সভাপতি কিঙ্কর মাঝি। উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতাল থেকে তাঁকে কোলকাতার এন.আর.এস মেডিকেল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছিলেন কিঙ্কর। তারপর আজ সেখানে তাঁর মৃত্যু ঘটে। তাঁর মৃত্যু সংবাদ পেয়েই গতকাল উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বাগনানের বেনাপুর গ্রাম।

এই ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল বিকেলে উলুবেড়িয়ার মনসাতলায় হাওড়া গ্রামীণ জেলা বিজেপির কার্যালয়ের সামনে ৬ নং জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। এর পাশাপাশি, বাগনানের বেনাপুরে টায়ার জ্বালিয়ে, গাছের গুঁড়ি ফেলে রাস্তা অবরোধ করেন বিজেপি কর্মীরা। অবরোধ তুলতে ঘটনাস্থলে আসে বিশাল পুলিশ বাহিনী ও র‍্যাফ। লাঠিচার্জ করে অবরোধ তুলে দেওয়া হয় বলে জানা গেছে। মূল দোষীকে গ্রেফতারের দাবিতে বাগনান থানা ঘেরাও করে বিজেপি।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা