জাওয়াদের জেরে রাতভর বৃষ্টি, মাথায় হাত আমতা, উদয়নারায়ণপুরের কৃষকদের

নিজস্ব সংবাদদাতা : একই বছরে দু’বার বন্যার ক্ষত কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই আবারও চরম দুর্ভোগের সম্মুখীন হলেন আমতা, উদয়নারায়ণপুরে বহু চাষি। ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ হানা না দিলেও‌ নিম্নচাপের জেরে রবিবার থেকে বৃষ্টি শুরু হয়েছে। সেই বৃষ্টির জল চাষের জমিতে জমায় বিপাকে পড়েছেন আমতার চাষীরা। সোমবার বেলায় একটু বৃষ্টি থামতেই জমিতে জমা জল বার করতে মাঠে নেমে পড়েন চাষীরা। উল্লেখ্য, বন্যার জল নেমে যেতেই ঋণ নিয়ে কোনোরকম আবার সবজি চাষে মাঠে নেমেছিলেন চাষিরা। সেই সমস্ত সবজি এখন জলের তলায়।তুফা সামন্ত নামে এক কৃষকের কথায়, বেসরকারি সংস্থা থেকে ঋণ নিয়ে আলু সর্ষে চাষ করেছিলাম। সমস্তটাই এখন জলের তলায়। সেগুলোকে বাঁচানো সম্ভব হবে না। চাষ না হলে কী করে সেই ঋন শোধ করব সেই চিন্তায় ভাবাচ্ছে এখন। বিস্তারিত জানতে নীচে পড়ুন…

সরকারি সাহায্যের দিকে তাকিয়ে চাষীরা।ইতিমধ্যে আমতা-২ নং ব্লকের কৃষি দফতরের পক্ষ থেকে আধিকারিকরা বিভিন্ন এলাকায় পরিদর্শনে বেরিয়েছেন। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনো জানানো সম্ভব নয় বলে জানান কৃষি প্রযুক্তি সহায়ক নন্দগোপাল মারান্ডি। সমস্ত ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সংগ্রহ করে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হবে বলে তিনি আরও জানান। আমতা-২ পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি দেলোয়ার হোসেন মিদ্দ্যা জানান,”বৃষ্টির ফলে চাষীদের চাষ করা সব্জি ও আলু নষ্ট হয়ে গিয়েছে। চাষী ভাইদের পাশে আছে রাজ্য সরকার।”

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা