পরিবারের শিশুদের গলায় ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে দুঃসাহসিক ডাকাতি আমতায়

নিজস্ব সংবাদদাতা : পরিবারের শিশুদের গলায় ধারালো অস্ত্র ধরে দুঃসাহসিক ডাকাতি। কয়েক লক্ষ টাকা ডাকাতি করে চম্পট ডাকাত দলের। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার গভীর রাতে আমতা থানার চন্দ্রপুর এলাকায়। পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে আগামী রবিবার চন্দ্রপুরের বাসিন্দা মসিউর রহমানের ছোট মেয়ে শাবানি খাতুনের বিয়ের দিন ধার্য হয়েছে।

সেই উপলক্ষে কেনা হয়েছিল বিয়ের গহনা ও নানান জিনিসপত্র। সমস্ত কিছুই রাখা হয়েছিল বাড়ির দোতলার একটি ঘরে। অভিযোগ ডাকাতদল প্রথমে একটি ম‌ইয়ের সাহায্যে পৌঁছায় দোতালার বারান্দার বাইরে পর্যন্ত। ম‌ইয়ে দাঁড়িয়ে বাইরে থেকেই বারান্দার স্লাইডিং জানলা কেটে প্রবেশ করে বারান্দার ভিতর। এরপরেই বাড়ির মোট সাতটি কামড়ার মধ্যে ছয়টিতে বাইরে থেকে ছিটকিনি ও হাসবোল্ট আটকে দিয়ে বিয়ের জিনিসপত্র রাখা ঘরটিতে প্রবেশ করে দরজা ভেঙে।

সেই ঘরেই শুয়েছিলেন হবু কনে শাবানি ও তার মেজদিদি ইসমাতারা খাতুন। সাথে ছিল ইসমাতারার পাঁচ ও দেড় বছর বয়সী দুই ছেলে। শাবানির ভাই সেখ সুজাত বলেন যে ঘরে বিয়ের গহনা রাখা ছিল,ডাকাত দল দরজা ভেঙে সেই ঘরে ঢুকে পড়ে। দরজা ভাঙার শব্দে দিদিদের ঘুম ভেঙে যায়। তারা ভয়ে চিৎকার করে উঠতেই, দিদির পাঁচ বছরের ছেলের গলায় ধারালো অস্ত্র ধরে। চিৎকার করলেই গলা কেটে দেওয়ার হুমকি দেয়। আতঙ্কে তারা চুপ করে যায়।

বিয়ের গহনার পাশাপাশি ইসমাতারার কানের দুল ছিঁড়ে নেয় ডাকাতদল। খুলে নেয় শাবানির হাতের বালা সহ অন্যান্য গহনা। ইসমাতারা ও শাবানির চিৎকারে বাড়ির অন্যান্য সদস্যরা জেগে গেলেও বাইরে থেকে দরজা বন্ধ থাকায় কেউই বাইরে বেরোতে পারেননি। পরে তারা দরজা ভেঙে বাইরে বের হয়। হাওড়া গ্রামীণ জেলা পুলিশের এক কর্তা জানান একটি চুরির ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ গিয়েছিল। এখনো পর্যন্ত কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা