পাওয়ার লিফটিংয়ে সোনা জিতল হাওড়ার মৌলি, সাত মাসের অনুশীলনে মিলল সাফল্য

নিজস্ব সংবাদদাতা : বরাবরই খেলাধুলার প্রতি ভীষণ ঝোঁক। ছোটো থেকে বিভিন্ন খেলাধুলার চর্চা করলেও মাত্র সাতমাস আগে পাওয়ারলিফটিংয়ে হাতেখড়ি। মাত্র সাতমাসের অনুশীলনেই এলো বড়সড় সাফল্য। কানপুরে অনুষ্ঠিত ন্যাশনাল পাওয়ারলিফটিং প্রতিযোগিতায় সোনা জিতল হাওড়ার ডোমজুড়ের কন্যা মৌলি হালদার। জানা গেছে, ছোটো বেলা থেকেই মৌলির খেলাধুলার প্রতি ঝোঁক। দু-তিন বছর বয়স থেকেই যোগব্যায়াম শুরু। পরবর্তী সময়ে জিমন্যাস্টিক, অ্যাথলেটিক্সে যুক্ত হয় ডোমজুড়ের সলপের বাসিন্দা মৌলি। বেশ কয়েক বছর ধরে চলে লাগাতার অনুশীলন। জাপলিং শটপুট ও হেমারিংয়ে সে পারদর্শী হয়ে ওঠে। কিন্তু কোনোভাবেই সে রাজ্যস্তরে জায়গা করতে পারছিলনা। একসময় অনুশীলন বন্ধ করে দেয় মৌলি। বিস্তারিত জানতে নীচে পড়ুন...

তারপর ফের নতুন করে খেলার জগতে ফেরা। প্রশিক্ষক শম্পা গুহর পরামর্শ মতো পাওয়ারলিফটিংয়ে অনুশীলন শুরু করে কোলকাতার চারুচন্দ্র কলেজের ফিজিক্যাল এডুকেশনের প্রথম বর্ষের এই ছাত্রী। মাস সাতেকের অনুশীলন নিয়েই সে যোগ দেয় কানপুরে অনুষ্ঠিত সাব-জুনিয়র ন্যাশনাল চ্যাম্পিয়নশিপে। সেই প্রতিযোগিতায় সকলকে পিছনে পেলে সোনা জয় করে হাওড়ার মৌলি হালদার। মেয়ের সাফল্যে ভীষণভাবে উচ্ছসিত মা বুলবুলি হালদার। বুলবুলি দেবীর কথায়, ছোটো থেকেই মেয়ে খেলাধুলায় খুব ভালো। আমরা চাই ও খেলোয়াড় হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হোক। সবরকম ভাবে ওর পাশে আমরা আছি। সামনের সেপ্টেম্বরেই ন্যাশানাল গেমস। তারই প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে মৌলি। দেশের হয়ে এশিয়ান গেমস ও অলম্পিকে প্রতিনিধিত্ব করাই স্বপ্ন বলে জানান হাওড়ার সলপের এই প্রতিভাবান কন্যা।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা