বাগনানে গৃহবধূকে খুনের অভিযোগ গ্রেফতার স্বামী, পলাতক শ্বশুরবাড়ির লোকজন

নিজস্ব সংবাদদাতা : গৃহবধূকে খুনের অভিযোগ গ্রেফতার হল স্বামী। সোমবার অভিযুক্ত বরজাহান আলিকে বাগনান থানার পুলিশ গ্রেফতার করে। অভিযোগ আরও টাকার দাবিতে বরজাহান স্ত্রী রাজিয়া বেগমকে(২৪) শ্বাসরোধ করে খুন করেছেন। এই ঘটনায় মৃতের বাবা আসগার মিদ্যে জামাই বরজাহান আলি ও মেয়ের শ্বশুরবাড়ির আরও ৪ জনের বিরুদ্ধে বাগনান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তার ভিত্তিতে পুলিশ বরজাহানকে গ্রেফতার করেছে। বাকিরা পলাতক। তাদের খোঁজে পুলিশ তল্লাশি করছে।পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে বাগনানের কাটাপুকুরের বাসিন্দা রাজিয়ার সঙ্গে বাগনানেরই বাঁকুড়দহ এলাকার বাসিন্দা মুকশেদ আলির পুত্র বরজাহান আলির বিয়ে হয় বছর দুয়েক আগে। বিয়ের সময় পাত্রপক্ষের দাবিমত নগদ টাকা ও সোনার গয়না দেন আসগার মিদ্যে। অভিযোগ তার সত্ত্বেও বিয়ের কয়েক মাস পর থেকেই আরো টাকার জন্য চাপ দিতে থাকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন। তাদের কথা না শুনলেই জামাই ও তার পরিবারের লোকেরা মেয়ের উপর অকথ্য অত্যাচার চালাত। আসগার বলেন এছাড়াও জামাই মেয়ের উপর যৌন নির্যাতন চালাত। এতকিছুর পরেও মেয়ে সংসার করার জন্য সব চুপচাপ মেনে নিতে। রবিবার সকালে বরজানের পরিবারের লোকেরা তাদের ফোন করে জানান রাজিয়া আত্মহত্যা করেছে। আসগার বাবুরা মেয়ের শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে দেখেন রাজিয়া মৃত অবস্থায় বিছানার উপর পড়ে রয়েছে। আসগার বলেন জামাই ও তার পরিবারের লোকেরা মেয়েকে শ্বাসরোধ করে খুন করার পর গলায় দড়ি দিয়ে টাঙিয়ে দিয়েছে। তিনি বাগনান থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। পুলিশ একটি খুনের মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ও মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। বরজাহানকে সোমবার উলুবেড়িয়া মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক তার ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা