বিবাদের জের! উদয়নারায়ণপুরে প্রতিবেশী মহিলাকে কোপানোর চেষ্টা ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা : ড্রেন তৈরিকে কেন্দ্র করে বিবাদ। আর তারই জেরে বাড়িতে ঢুকে এক ব্যক্তিকে খুনের চেষ্টার পাশাপাশি আক্রান্তের স্ত্রী’কে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠল এক প্রতিবেশী যুবকের বিরুদ্ধে। এই ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল গ্রামীণ হাওড়ার উদয়নারায়ণপুর থানার দক্ষিণ খিলা গ্রামে।

জানা গেছে, অভিযুক্ত যুবকের নাম সুমন পোড়েল। সূত্রের খবর, কয়েকদিন আগেই দক্ষিণ খিলা গ্রামে একটি ড্রেন তৈরিকে কেন্দ্র করে সুমন পোড়েলের সাথে তারই প্রতিবেশী অজিত পোড়েলের অশান্তি হয়। সংশ্লিষ্ট বিষয়টি সাময়িকভাবে মিটে গেলেও সুমন অজিত পোড়েলকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয় বলে অভিযোগ।

অজিত পোড়েলের স্ত্রী’র অভিযোগ, “সোমবার রাতে আমি ও আমার ছেলে একটি ঘরে শুয়ে ছিলাম। রাত ১২ টা নাগাদ সুমন ওয়াইফাই লাগানোর অছিলায় আমাদের বাড়িতে আসে। সুমন আমার স্বামীর সঙ্গে কথা বলার মাঝে আচমকাই আমার স্বামী চিৎকার করে ওঠেন। চিৎকার শুনে বাইরে এসে দেখি সুমন আমার স্বামীকে দা দিয়ে কোপাচ্ছে।”

ওই মহিলার অভিযোগ, “আমি স্বামীকে বাঁচাতে চেষ্টা করলে সুমন আমার শ্লীলতাহানি করে। আমি চিৎকার করলে সে দৌড়ে পালায়।”সোমবার রাতেই ওই মহিলা সুমন পোড়েলের নামে উদয়নারায়ণপুর থানায় লিখিত অভিযোগ জানান। তারপরই পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে।

জানা গেছে, ধৃত যুবক সম্পর্কে অভিযোগকারীনির নাতি। ধৃতকে আজ উলুবেড়িয়া আদালতে তোলা হলে বিচারক তাকে ৩ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন। যদিও তার বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে সুমন। তার দাবি, তাকে ফাঁসানো হয়েছে। সুমনের বক্তব্য, একটি ড্রেন তৈরিকে কেন্দ্র করে দু’ই যুবকের সঙ্গে অজিত পোড়েলের ঝামেলা হয়েছিল। ওই যুবকই তাকে পরিকল্পনা করে ফাঁসিয়েছে।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা