পর্যটনে দিশা! বাগনানে গড়ে ওঠা বাংলার অন্যতম ইকো-ট্যুরিজম পার্কের উদ্বোধন

নিজস্ব সংবাদদাতা : রাজ্যের পর্যটন মানচিত্রে নবরূপে আত্মপ্রকাশ করল গ্রামীণ হাওড়ার বাগনান। বাগনানের আন্টিলা ও বৈদ্যনাথপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় গড়ে উঠল বৃহৎ ইকো-ট্যুরিজম পার্ক, যার নামকরণ করা হয়েছে ‘মা-মাটি-মানুষ উদ্যান’। রবিবার এই উদ্যানের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রাজ্যের পুর ও নগর উন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাগনানের বিধায়ক সেন অরুণাভ সেন, বাগনান-১ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি পঞ্চানন দাস, বাগনান-২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মৌসুমী সেন সহ অন্যান্যরা। সূত্রের খবর, এটি এই মুহূর্তে হাওড়া জেলার সবচেয়ে বড়ো বিনোদন পার্ক। পার্কের পাশ দিয়েই বয়ে গিয়েছে মেদিনীপুর ক্যানেল।

যার পশ্চিমে রূপনারায়ণ ও পূর্বে দামোদর নদ অবস্থান করছে। ভ্রমণপ্রিয় বাঙালির কাছে নবগঠিত এই পার্ককে চিত্তাকর্ষক করে তুলতে মেদিনীপুর ক্যানেলের উপর চার কামরা যুক্ত কাঠের অত্যাধুনিক ঝুলন্ত কটেজ তৈরি করা হয়েছে। থাকছে রাত্রিবাসের ব্যবস্থা। এর পাশাপাশি, পার্কে ইতিমধ্যে র‍ঙবেরঙের অসংখ্য ফুল ও ফলের গাছ লাগানো হয়েছে। শিশুদের মনোরঞ্জনের জন্য রয়েছে সিমেন্টের ডাইনোসর, পাখি সহ বিভিন্ন মডেল।

থাকছে কৃত্রিম ঝর্ণা, বিশেষ লাইট ও সাউন্ডের ব্যবস্থা। থাকবে বোটিংয়ের ব্যবস্থা। বাগনানের বিধায়ক অরুণাভ সেন বলেন, এই ক্যানেলটি একসময় বুজে গিয়েছিল। জঙ্গলে ভরে গিয়েছিল ক্যানেলের উভয় তীর। মূলত, তাঁর উদ্যোগেই ক‍্যানেল সংস্কারের কাজ শুরু হয়। বিধায়ক জানান, তখন থেকেই তিনি ক‍্যানেলটিকে কেন্দ্র করে একটি বিনোদন পার্ক গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখেন।

তাঁর সেই স্বপ্নই বাস্তবে রূপায়িত হল। বাঁটুল–বৈদ্যনাথপুর ও আন্টিলা গ্রাম পঞ্চায়েতের যৌথ উদ্যোগে বিশাল এলাকা জুড়ে এই পার্কটি গড়ে তোলা হয়েছে। আসন্ন বসন্তের দুপুরে কিমবা বিকালে ভ্রমণপ্রিয় বাঙালির কাছে নতুন গন্তব্যের নাম যে বাগনানের মা-মাটি-মানুষ উদ্যান হয়ে উঠবে তা নির্দ্বিধায় বলাই যায়।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা