বৈচিত্র্যময় ভারত, সবুজ বাঁচাও সহ একাধিক ভাবনাকে তুলে ধরলো আমতার ‘স্টুডেন্টস হেলথ্ হোম’

নিজস্ব সংবাদদাতা : শ’য়ে শ’য়ে এগিয়ে চলেছে কালোমাথা।সুশৃঙ্খলভাবে এগিয়ে চলা পদযাত্রা থেকে কখনো ভেসে উঠছে ‘আর নয় অপচয়, হোক জল সঞ্চয়’, কখনো ধ্বনিত হচ্ছে ‘বিবিধের মাঝে দেখ মিলন মহান’ আবার বা ‘গাছ লাগান,সবুজ বাঁচান’।বৈচিত্র্যময় ভারত,পানীয় জল অপচয় রোধ,সবুজ বাঁচাও,রক্তদান,ডেঙ্গু প্রতিকারের মতো অত্যন্ত প্রাসঙ্গিক বেশ কিছু ভাবনাকে তুলে ধরছে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা।কোনো স্কুলের পড়ুয়ারা সেজেছে গাছ, কেউ ট্যাবেলো সাজিয়ে নৃত্যের মধ্য দিয়ে তুলে ধরেছে বৈচিত্র্যময় ঐক্যের ভারতকে।’স্টুডেন্টস হেলথ্ হোম’-এর ‘রাজ্য উৎসব-২০২০’ এর সূচনা উপলক্ষ্যে আমতা শহরে আয়োজিত বর্ণাঢ্য পদযাত্রায় এভাবেই সামিল হয়েছে গ্রামীণ হাওড়ার ২৭ টি বিদ্যালয়ের প্রায় ১৫০০ ছাত্রছাত্রী।

বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ব্যান্ড,এন.সি.সি ইউনিটের পাশাপাশি ছিল রাজ্য তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের রণপা নৃত্য।বিভিন্ন বিদ্যালয়ের পড়ুয়া,শিক্ষক-শিক্ষিকারা ছাড়াও এই শোভাযাত্রায় পা মেলান সিরাজবাটী চক্রের অবর বিদ্যালয় পরিদর্শক দীপঙ্কর কোলে,আমতার প্রধান তুষার সিং,বিশিষ্ট চিকিৎসক অমিতাভ ভট্টাচার্য সহ বহু বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।উৎসব কমিটির সম্পাদক বিমল সেনগুপ্ত জানান,কিশোর কবি সুকান্ত ভট্টাচার্যের মৃত্যুর পর ১৯৫২ সালে তাঁর বেশ কিছু বন্ধু ছাত্র ছাত্রীদের শারীরিক, মানসিক ও সামাজিক স্বাস্থ্যের সুরক্ষায় ‘স্টুডেন্টস হেলথ হোম’ নামক এই সংগঠন গড়ে তোলেন।মাত্র ১০ টাকার বিনিময়ে পড়ুয়ারা সুচিকিৎসা পেয়ে থাকেন এই সংস্থার পক্ষ থেকে।সুস্বাস্থ্যের পাশাপাশি সুস্থ সংস্কৃতির বিকাশে সারাবছর রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা আঞ্চলিক কেন্দ্রে নৃত্য,সংগীত,ক্যুইজ,বিতর্কের মতো একাধিক ইভেন্টের আয়োজন করে এই সংগঠন।

মূলত তারই ভিত্তিতে বাছাই করা প্রতিযোগীদের নিয়েই প্রতিবছর রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে রাজ্য উৎসব আয়োজিত হয়।এবার সেই আয়োজনের দায়িত্ব নিয়েছে আমতা আঞ্চলিক কেন্দ্র।আমতা আঞ্চলিক কেন্দ্রের ব্যবস্থাপনাতেই ২২ ও ২৩ শে জানুয়ারী রাজ্যস্তরীয় এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে আমতা-১ ব্লকের আমতা পীতাম্বর উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে।অনুষ্ঠানের অন্যতম উদ্যোক্তা শিক্ষক অলোক চন্দ্র চন্দ্র জানান,এই উৎসবে রাজ্যের ২৫ টি আঞ্চলিক কেন্দ্রের ৫১৯ জন প্রতিযোগী মোট ২৭ টি ইভেন্টে অংশগ্রহণ করেছে।

রাজ্য উৎসবের উদ্বোধনী মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট চিত্রপরিচালক কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়,আমতার বিধায়ক অসিত মিত্র,বিশিষ্ট চিকিৎসক পবিত্র গোস্বামী সহ প্রমুখ।পদযাত্রায় ব্যান্ড হাতে অংশ নিয়েছিল সোনামুই ফতে সিং নাহার উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর পড়ুয়া সায়ন কাঁড়ার।সায়নের কথায়,”এই ধরনের মহৎ অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পেরে অত্যন্ত ভালো লাগছে।” আবার,শোভাযাত্রায় অংশ নেওয়া আমতা নিত্যানন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা বৈশাখী মাজি বলেন,এই উদ্যোগ পড়ুয়াদের মধ্যে সুস্থ সংস্কৃতিবোধ গড়ে তুলতে সদর্থক ভূমিকা নেবে।আমতা পীতাম্বর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে শুরু হয়ে আমতা থানা হয়ে পদযাত্রাটি ফিরে আসে উক্ত বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে।এই বৃহৎ শোভাযাত্রা উপলক্ষ্যে আমতা থানার পক্ষ থেকে বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা