জমি সংক্রান্ত বিবাদকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত উলুবেড়িয়ার কৈজুরী এলাকা, ঘটনাস্থলে র‍্যাফ ও বিশাল পুলিশবাহিনী

নিজস্ব সংবাদদাতা : জমি সংক্রান্ত বিবাদকে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে উঠল উলুবেড়িয়ার কৈজুরী এলাকা। চলে ইঁট বৃষ্টি, ভাঙচুর ও মোটর বাইকে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। ঘটনাস্থলে র‌্যাফ এবং বিরাট পুলিশ বাহিনী পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। জানা গেছে, উলুবেড়িয়ার বাসিন্দা মলয় বালা উলুবেড়িয়ার কৈজুরীতে একটি জায়গা কিনেছিলেন। ওই জমি কেনার পরেই তাঁর কাছে লক্ষাধিক টাকা দাবি জানিয়েছিল এলাকার কিছু যুবক। যদিও মলয় বালা সেই টাকা দিতে অস্বীকার করেন।

অভিযোগ, রবিবার দুপুরে এলাকার কিছু যুবক এবং স্থানীয় ক্লাবের কয়েকজন সদস্য মিলে মলয় বাবুর কেনা জায়গাটি জোর করে বেড়া দিয়ে ঘিরে দেয়। সেই খবর জানতে পেরে মলয় বাবুর স্ত্রী ও তার ছেলে ঘটনাস্থলে গেলে ওই সমস্ত যুবকরা তাদের ব্যাপক মারধর করে বলে অভিযোগ। ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় মলয় বাবুর পাড়ার লোকজন। দু’ই পক্ষের মধ্যে শুরু হয় ব্যাপক ইঁট বৃষ্টি।

পাশাপাশি ভাঙচুর করা হয় বেশ কয়েকটি বাড়ি ও একটি অটো। আগুন লাগিয়ে দেয়া হয় মলয় বাবুর বাইক সহ বেশ কয়েকটি বাইকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বিশাল পুলিশবাহিনী ও র‌্যাফ। পাশাপাশি দমকলের একটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিভিয়ে দেয়। মলয় বাবুর অভিযোগ, জায়গা কেনার পর তার নামে রেজিস্ট্রি করা হয়ে গেছে। তারপর থেকেই বিল আকারে দুষ্কৃতী তার কাছ থেকে ১০ লক্ষ টাকা দাবি করে। নচেৎ জায়গাটি ১ কোটি টাকার বিনিময়ে বিক্রি করার জন্য চাপ দিতে থাকে।

মলয় বাবু আরো জানান, “আমি টাকা দিতে বা বিক্রি করতে রাজি না হওয়ায় আজ দুপুরে জানতে পারি আমার জমির সামনে বেড়া দিয়ে ঘিরে দিয়েছে এলাকার কিছু লোক দুষ্কৃতী এবং স্থানীয় কিছু যুবক। থানায় অভিযোগ করার পর আমার স্ত্রী সেখানে গেলে তাকেও মারধর করা হয়। পরে আমি সেখানে যাওয়ার পর আমাকে মারধরের পাশাপাশি আমার দুটি অটো ও একটি বাইক জ্বালিয়ে দেয়া হয়। পাশাপাশি আমার শ্বশুরবাড়ি এবং গ্যারেজে ও ব্যাপক ভাঙচুর চালায় দুষ্কৃতীরা।” ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে উলুবেড়িয়া থানার পুলিশ। স্থানীয় এলাকায় উত্তেজনা থাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা