দুর্যোগের জের! বড়ো জাহাজকে মাঝ সমুদ্রে নোঙরের নির্দেশ, মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা

নিজস্ব সংবাদদাতা : ‘গুলাব’-এর জেরে ২৮ ও ২৯ শে সেপ্টেম্বর উপকূলীয় এলাকায় ভারী থেকে অতিভারী সাথে ঝোড়ো হাওয়ার সতর্কতা রয়েছে। রাজ্যের মৎস্য সংগঠনগুলি সূত্রে জানা গেছে, সমুদ্র থেকে সমস্ত মৎস্যজীবী ট্রলার ও বোটকে দ্রুত ফিরে আসতে বলা হয়েছে। অনেকে বিভিন্ন খাঁড়ি এলাকায় নিরাপদ জায়গায় আশ্রয় নিয়েছেন। হলদিয়ামুখী সমস্ত জাহাজকে সাইক্লোন নিয়ে সতর্ক করে তাদের মাঝসমুদ্রে অপেক্ষা করতে বলা হয়েছে এবং তাদের সঙ্গে এমএমবি রেডিওর মাধ্যমে যোগাযোগ করা হচ্ছে। জাহাজগুলিকে আরওএস করে সমস্ত নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছে কোস্টগার্ড। একই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে হলদিয়া বন্দরেও।

আমফান ও যশ থেকে শিক্ষা নিয়ে বন্দরে নোঙর করা জাহাজগুলি ও বন্দর কর্তৃপক্ষ সব ব্যবস্থা নিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। পাশাপাশি নদীতে যে সমস্ত মৎস্যজীবী ছোটো নৌকা নিয়ে মাছ ধরতে যায়। তারা ভীষন সমস্যায় পড়েছে। মাছ ধরে সংসার চলে। কিন্তু নদীতে মাছ ধরা নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ায় ভীষন সমস্যা হচ্ছে। মৎস্যজীবীরা জানান অনেক টাকা ধার নিয়ে তারা জাল কিনেছেন এবং ব্যাবসা শুরু করেছিলেন। কিন্তু যশ এবং তার পরে গুলাব এর কারণে ব্যাবসা মন্দা। মৎস্যজীবীদের সুরক্ষার জন্য মাঝ সমুদ্রে মাছ ধরতে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারির ফলে তারা পড়েছেন সমস্যায়।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা