বামেদের নবান্ন অভিযান, হাওড়া জেলা জুড়ে প্রচারে ব্যস্ত যুব কর্মীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : জোড়াফুল বনাম পদ্মের লড়াইয়ের মাঝে পিছিয়ে নেই বামেরাও। বাংলায় হারিয়ে যাওয়া জমি ফিরে পেতে মরিয়া লড়াই চালাচ্ছে বামফ্রন্টের বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা। শিক্ষা ও চাকরির দাবিকে সামনে রেখে আগামী ১১ ই ফেব্রুয়ারী নবান্ন অভিযানের ডাক দিয়েছে ১০ টি বাম ছাত্র-যুব সংগঠন। বিধানসভা ভোটের আগেই নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করতে কার্যত মরিয়া বাম শিবির। নবান্ন অভিযানকে সর্বতোভাবে সফল করতে হাওড়া জেলা জুড়ে লাগাতার প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন কর্মীরা।

মূলত, সদর হাওড়ার বিভিন্ন জায়গায় পথসভা করে নবান্ন অভিযানের প্রচার চালাচ্ছেন সংগঠনের সদস্য-সদস্যারা। কখনো বালি-বেলুড়, কখনো বা শিবপুর কিমবা বেলগাছিয়ায় পথসভার মাধ্যমে আসন্ন কর্মসূচির প্রচার চলছে। বক্তার আসনে কখনো দেখা মিলছে বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক সৌরভ পালোধির, আবার কখনো মাইক ধরে কর্মীদের উজ্জীবিত করতে দেখা যাচ্ছে এসএফআইয়ের হাওড়া জেলা কমিটির সভানেত্রী শিল্পা মন্ডলকে।

এভাবেই হাওড়া সদরের বিভিন্ন অলিতেগলিতে প্রচারে ব্যস্ত বাম কর্মী-সমর্থকরা। পিছিয়ে নেই গ্রামীণ হাওড়াও। আসন্ন নবান্ন অভিযানকে সামনে রেখে মঙ্গলবার এসএফআই ও ডিওয়াইএফআইয়ের উদ্যোগে শ্যামপুরের হোগলাসি থেকে বেলপুকুর অব্ধি মশাল মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

অন্যদিকে, উদয়নারায়ণপুরেও মশাল মিছিলে পা মেলান বাম ছাত্র-যুব সংগঠনের কর্মীরা। আসন্ন নবান্ন অভিযান সম্পর্কে বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী ‘উলুবেড়িয়া সংবাদ’-এর প্রতিনিধিকে জানান,”মুখ্যমন্ত্রী কোনো নিয়োগের ব্যবস্থা করছেন না। উনি বাংলাকে শ্মশানে পরিণত করেছেন। তাই বাম ছাত্র-যুবরা ওইদিন মুখ্যমন্ত্রীকে নবান্নে রিলিজ অর্ডার ধরাতে যাবেন।”

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা