কথাশিল্পী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের নামে উলুবেড়িয়ায় মেডিকেল কলেজ

নিজস্ব সংবাদদাতা : বেশ কয়েক বছর আগেই উলুবেড়িয়ায় মেডিকেল কলেজ তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন সরকার। সেই মোতাবেক মেডিকেল কলেজ তৈরির প্রক্রিয়া জোরকদমে এগিয়ে চলেছে। এবার অমর কথাশিল্পী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের নামে উলুবেড়িয়ায় প্রস্তাবিত মেডিকেল কলেজের নামকরণ করল রাজ্য সরকার। নাম দেওয়া হয়েছে শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় গর্ভনমেন্ট মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল।

জানা গেছে, ইতিমধ্যেই নামকরণের বিষয়ে রাজ্য সরকার জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর ও উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দিয়েছে। সূত্রের খবর, আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই এই মেডিকেল কলেজ চালু হয়ে যাবে। সেবিষয়ে বিস্তারিত আলোচনার জন্য শুক্রবার এক প্রতিনিধি দল উলুবেড়িয়া হাসপাতালে আসছেন।

রাজ্যের জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের মন্ত্রী পুলক রায় বলেন, উলুবেড়িয়ায় চিকিৎসা ক্ষেত্রে নতুন পালক সংযোজিত হতে চলেছে। আগেই উলুবেড়িয়ায় সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল তৈরি হয়েছে। এবার মেডিকেল তৈরি হতে চলেছে।

জানা গেছে, ২০ একর জমির উপর এই মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালটি তৈরি হবে। যার মধ্যে উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতাল চত্বরে মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠানটি করার মতো এতটা জায়গা নেই। উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতাল চত্বরে রয়েছে ১৫ একর জায়গা। সেই জায়গার পাশাপাশি উলুবেড়িয়ার নিমদিঘিতে বাকি ৫ একর জমিতে এই সুবিশাল চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠতে চলেছে।‌

উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতালের সুপার চিকিৎসক সুদীপ রঞ্জন কাঁড়ার জানান, নতুন হাসপাতালের নামকরণ করা হচ্ছে শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় গর্ভনমেন্ট মেডিকেল কলেজ এবং হাসপাতাল। উল্লেখ্য, হাওড়ার সাথে অমর কথাশিল্পী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের নিবিড় যোগ। হাওড়া কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পাশাপাশি শেষ জীবনের বেশ কয়েকটা বছর গ্রামীণ হাওড়ার রূপনারায়ণের তীরে পানিত্রাসে কাটিয়ে ছিলেন শরৎবাবু।

ইতিমধ্যেই পানিত্রাসে শরৎবাবুর বাড়িকে কেন্দ্র করে পর্যটন ব্যবস্থা গড়ে তুলতে একাধিক উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার। এবার শরৎবাবুর নামে উলুবেড়িয়ার একমাত্র সরকারি মেডিকেল কলেজ গড়ে তোলায় খুশি বহু মানুষ।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা