অভাব-অনটনে কাটছে দিন, মোহনবাগানের যুব ফুটবলারের পাশে দাঁড়াল উলুবেড়িয়ার ক্রীড়াপ্রেমী সংগঠন

নিজস্ব সংবাদদাতা : একটা সময় বাগনান, আমতা, উলুবেড়িয়ার বুক থেকে একচেটিয়া বহু নামী ফুটবলার উঠে এসেছেন কোলকাতা ময়দানের বুকে। দাপিয়ে খেলেছেন ইস্টবেঙ্গল, মোহনবাগান, মহামেডান সহ একাধিক নামীদামী ক্লাবে। তবে এই দশকে গ্রামীণ হাওড়ায় খুব বেশি খেলার চল নেই বললেই চলে। বর্তমানে গ্রামীণ হাওড়া থেকে উঠে কোলকাতার বড়ো ক্লাবে খেলা ফুটবলারের সংখ্যা খুবই নগণ্য। পাড়ার মাঠে কিমবা খেপ খেলেই হারিয়ে যাচ্ছে অনেক প্রতিভা।

এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়েও সমস্ত প্রতিবন্ধকতার বেড়াজালকে ছিন্ন করে মোহনবাগানের অনুর্ধ্ব-১৭ ফুটবল দলে নিজের জায়গা করে নিয়েছেন উলুবেড়িয়ার কার্ত্তিক মালিক। বাড়িতে অসুস্থ বাবা। মা, বোনকে নিয়ে কোনোরকমে সংসার চালায় এই যুব ফুটবলার। দীর্ঘ লকডাউনের জেরে বন্ধ খেলা। তাই পেটেও পড়েছে টান। কোনোরকমে দিন গুজরান হচ্ছে কার্ত্তিক ও তাঁর পরিবারের।

এরকমই এক কঠিন সময়ে উলুবেড়িয়ার এই প্রতিবাভান ফুটবলারের পাশে দাঁড়াল ‘উলুবেড়িয়া মেরিনার্স’-এর সদস্যরা। মোহনবাগান এই ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা উদ্যোগী হয়ে চাঁদা সংগ্রহে নামেন। তাঁদের সংগৃহীত ৭৮৫০ টাকা আজ কার্তিকের বাড়িতে গিয়ে তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দেন সৌম্য, অনিমেষ, সায়নের মতো সদস্যরা। এই ফুটবলপ্রেমী সংগঠনটির অন্যতম সদস্য অরিন্দম বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, “তাঁরা আগামীতেও কার্ত্তিকের পাশে থাকবেন।” উলুবেড়িয়া স্পোর্টস একাডেমির তরফেও কার্ত্তিকের হাতে দু’হাজার টাকা তুলে দেওয়া হয় বলে জানা গেছে।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা