ছেলের জন্মদিনে সুন্দরবনের ইয়াস বিধ্বস্তদের পাশে এগিয়ে এলেন উদয়নারায়ণপুরের শিক্ষক

নিজস্ব সংবাদদাতা : অন্যান্যবার সাড়ম্বরে জন্মদিন পালিত হলেও এবার পরিস্থিতিটা একটু ভিন্ন। একদিকে করোনা আবহ, অন্যদিকে ঘূর্ণিঝড় ও কোটালের জোড়া আঘাতে বিধ্বস্ত বহু এলাকা। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ছেলের জন্মদিনে কোনো আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠান না করে সুন্দরবনের ইয়াস বিধ্বস্ত মানুষের পাশে এগিয়ে এলেন গ্রামীণ হাওড়ার উদয়নারায়ণপুরের শিক্ষক শ্যামল জানা।

জানা গেছে, উদয়নারায়ণপুরের পালিয়াড়া গ্রামের বাসিন্দা শ্যামল জানার পুত্র স্যমন্তক ৬ বছরে পদার্পণ করল। ছেলের জন্মদিন উপলক্ষ্যে আমতার অন্যতম স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘স্বপ্ন দেখার উজান গাঙ’-এর হাতে নগদ অর্থ ও শিক্ষাসামগ্রী তুলে দিলেন শ্যামল বাবু।

উল্লেখ্য, আমতার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি গ্রামীণ হাওড়ার শ্যামপুর, পূর্ব মেদিনীপুরের মায়াচরের পাশাপাশি সুন্দরবনের একাধিক বিধ্বস্ত এলাকায় কাজ করছে। তাদের এই বৃহত্তর কর্মকাণ্ডেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলেন শিক্ষক শ্যামল জানা। শ্যামল জানার কথায়, সুন্দরবনের বহু মানুষ বিপর্যস্ত। বহু পড়ুয়ার শেষ সম্বলটুকু ভেসে গিয়েছে।

আমতার এই সংগঠন ইয়াস বিধ্বস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে অসাধারণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। ওদের লড়াইকে আরও বৃহত্তর করে তুলতে গেলে সবার সাহায্যের প্রয়োজন। তাই ছেলের জন্মদিনে কোনো অনুষ্ঠান না করে ওদের মাধ্যমে ইয়াস বিধ্বস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এই প্রয়াস।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির সভাপতি অরুণ খাঁ জানান, আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই আমরা বিপুল পরিনাণ নিত্যব্যবহার্য সামগ্রী ও শিক্ষাসামগ্রী নিয়ে সুন্দরবনের ক্ষয়িষ্ণু দ্বীপ ঘোড়ামারায় যাচ্ছি। সেই কর্মকান্ডের এই অর্থ ব্যয় করা হবে।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা