সামনেই কোটাল! আশঙ্কায় প্রহর গুনছেন শ্যামপুরের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ, জোরকদমে চলছে বাঁধ মেরামতির কাজ

নিজস্ব সংবাদদাতা : গতকালের উত্তাল রূপনারায়ণকে দেখে আঁতকে উঠেছিলেন আট থেকে আশি প্রায় সকলেই। ভরা কোটালের জেরে বাঁধ উপচে জলমগ্ন হয়েছিল রূপনারায়ণ লাগোয়া গ্রামীণ হাওড়ার শ্যামপুরের বেশ কিছু এলাকা।

আন্টিলাপাড়া, শিবগঞ্জ, গাদিয়াড়ায় নতুন করে জোয়ারের জল না ঢুকলেও এখনও জলমগ্ন বেশ কিছু এলাকা। কোথাও রাস্তার উপর গোড়ালি জল আবার কোথাও বা জলমগ্ন চাষের ক্ষেত।

গতকাল থেকেই কার্যত রাতদিন এক করে শ্যামপুরের বিভিন্ন এলাকায় স্থানীয় প্রশাসন ও গ্রামবাসীরা বাঁধ মেরামতির কাজে হাত লাগিয়েছেন। শ্যামপুর নাগরিক ফোরামের সম্পাদক উত্তম রায়চৌধুরী জানান, “নদীতে ভাটা থাকায় গাদিয়াড়া সহ শ্যামপুরের বেশ কিছু এলাকায় জল নেমেছে। তবে এখনো কিছু জায়গায় জল রয়েছে।”

তাঁর কথায়, “নদীর নাব্যতা কমে যাওয়া ও নদীতে বোল্ডার ফেলে বাঁধ দেওয়ার জেরেই এই বিপত্তি।” সাময়িকভাবে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলেও সামনেই রয়েছে কোটাল। আর সেই আশঙ্কাতেই ঘুম উড়েছে রূপনারায়ণ সংলগ্ন শ্যামপুরের বিভিন্ন গ্রামের মানুষের।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা