শিক্ষক দিবসে প্লাস্টিক ও পলিথিন সাফাই অভিযান হাওড়ার আমতা আওরগাছি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের

নিজস্ব সংবাদদাতা : হাওড়া জেলার আমতা-১ নং ব্লকের আওরগাছি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক অভিনব উদ্যোগ দেখা গেল। আওরগাছি প্রাথমিক বিদ্যালয় নিয়মিত শিক্ষা সম্পর্কিত সমাজকল্যাণমূলক কর্মসূচি গ্রহণ করে থাকে। বৃহস্পতিবার শিক্ষক দিবসে এই বিদ্যালয়ে শিক্ষক দিবস উদযাপন ছাড়াও প্লাস্টিক ও পলিথিন সাফাই অভিযানে অংশগ্রহণ করে। পলিথিন ও প্লাস্টিক বর্তমানে পৃথিবীর ত্রাস। পরিবেশের দূষণ সৃষ্টিতে এদের জুড়ি নেই। শরীরেও এর নানা ক্ষতিকর প্রভাব। সেজন্য স্থানীয় এলাকাকে পলিথিন মুক্ত করার শপথ নিয়ে এই বিদ্যালয়ে কচিকাঁচা ছাত্ররা। শিক্ষক দিবসে তারা বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় পরিত্যক্ত পলিথিন ও প্লাস্টিক সামগ্রী পরিস্কার করে। কিছু বাড়িতেও তারা যায়। ব্যবহৃত পলিথিন ও প্লাস্টিক সংগ্রহ করে বাড়ির লোককে বোঝাই পলিথিন ও প্লাস্টিক ব্যবহারের কুফল। এর আগেও তারা নির্মল বিদ্যালয় সপ্তাহে একদিন এই অভিযানে অংশ নিয়েছিল। এই ধরনের কর্মসূচি ভবিষ্যতেও তারা মাঝে মাঝে চালিয়ে যান। বিদ্যালয়ে শিশু সংসদ আছে।

শিশু সংসদের প্রধানমন্ত্রী শুভাশিস দলুই এর নেতৃত্বে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র ছাত্রীরা এই কর্মসূচি রূপায়ণে। সহযোগিতায় ছিল প্রধান শিক্ষক তথা বিশেষ পরিবেশ কর্মী গ্রীন চেঞ শুভমেন্টের পরিচালক প্রদীপ রঞ্জন রীত,শিক্ষক সৌমেন মন্ডল শিক্ষিকা প্রীতি চংদার। এলাকার মানুষ এই ধরনের উদ্যোগীকে খুব খুশি। স্থানীয় গৃহবধূ প্রতিমা পাত্র বলেন, পলিথিন প্লাস্টিকের ব্যবহার যে কতটা ক্ষতিকারক তা জানতাম না। পরেরবার থেকে আমিও সঙ্গে থাকবো। আমিতো পলিথিন ব্যবহার করব না অন্যদেরও ব্যবহার না করতে বোঝাবো। প্রধান শিক্ষক প্রদীপবাবু বলেন, পলিথিন থার্মোকল ইত্যাদির ব্যবহার পরিপূর্ণরূপে বন্ধ করতে হবে। প্লাস্টিকের বড় সামগ্রী গুলোও যথাসম্ভব ব্যবহার কমাতে হবে। ব্যবহৃত সামগ্রিক গুলোকে রিসাইক্লিং করতে হবে। দরকার গণসচেতনতা। বিদ্যালয়ের সুকুমারমতি ছাত্র-ছাত্রীদের আমরা আগে তা ভালো করে বুঝিয়েছি। সেগুলিই তারা স্থানীয় মানুষদের বোঝাচ্ছে। ছোটদের আবেদনের গুরুত্ব বেশি। মানুষ মন দিয়ে শুনছে ও বলছে প্রশংসা করছে। এই কর্মসূচি লাগাতার চলতে থাকবে যতদিন না অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব হচ্ছে। এদিন শিক্ষক দিবস উদযাপন করা হয়। উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজকর্মী শ্রাবণী মান্না, কৃষ্ণ মান্না প্রমূখ।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা