উলুবেড়িয়ার ধাবায় যুবকের মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য, তদন্তে পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা : ধাবায় খেতে গিয়ে এক যুবকের মৃত্যুকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল গ্রামীণ হাওড়ার উলুবেড়িয়ায়। রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে উলুবেড়িয়া থানার জাতীয় সড়ক সংলগ্ন পানপুর মোড়ের একটি ধাবায়। জানা গেছে, মৃত যুবকের নাম বিশু মাজি (৩২)। এই ঘটনায় সংশ্লিষ্ট ধাবার কর্মচারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলেছে মৃত যুবকের বন্ধু ও পরিবারের লোকজন। মৃত বিশু মাজি উলুবেড়িয়া পৌরসভার ১৫ নং ওয়ার্ডের চেঙ্গাইল রায়পাড়ার বাসিন্দা। ঘটনার পর থেকেই ধাবাটি বন্ধ রয়েছে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত নিহত যুবকের এক বন্ধু বিবেকানন্দ হোতার কথায়, “রবিবার সন্ধ্যায় আমরা পাঁচ বন্ধু মিলে পানপুর মোড়ে একটি পেট্রোল পাম্প সংলগ্ন একটি ধাবায় খেতে আসি। ধাবায় মদ খাওয়ার পর আমাদের নেশা হয়ে গিয়েছিল। আরও মদ চাইলে ধাবার কর্মচারীরা তা দিতে অস্বীকার করে। এই নিয়ে ধাবার কর্মচারীদের সাথে আমাদের বিবাদ শুরু হয়। বিবেকানন্দের অভিযোগ, “ওই সময় ধাবার কর্মচারীরা ফোন করে কাউকে ডেকে নেয়। কথা শেষ হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই প্রায় ৫০ জন যুবক এসেই আমাদের বেধড়ক মারধর শুরু করে। সেই সময় আমার পকেট থেকে আটশো টাকা এবং গলার একটি চেন ছিনিয়ে নেয়।” বিবেকানন্দের আরও অভিযোগ, “যুবকদের মধ্যে একজন বিশুকে লক্ষ্য করে একটি বোতল ছোঁড়ে। প্রাণভয়ে বিশু স্কুটি নিয়ে পালাতে গিয়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি লরির চাকার ওপরে গিয়ে পড়ে। সেই সময় বিশু মাথায় আঘাত পায়।”

জানা গেছে, পরে স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ বিশুকে উদ্ধার করে উলুবেড়িয়ার সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘটনা প্রসঙ্গে উলুবেড়িয়া পৌরসভার ১৫ নং ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর সেখ সেলিম বলেন, “আমার এলাকার একজন যুবক নিহত হয়েছেন। এই ব্যাপারে উপযুক্ত তদন্ত করে পুলিশ প্রকৃত দোষীকে গ্রেফতার করুক। একই সঙ্গে ওই পেট্রোল পাম্প ও ধাবার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখা হোক। তাতে বোঝা যাবে কার ছোঁড়া বোতলের আঘাতে বিশুর মৃত্যু হয়েছে।” তিনি আরও বলেন, “পুলিশের কাছে মৌখিক অভিযোগ করা হয়েছে। সোমবার বিশুর ময়নাতদন্তের পর লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করা হবে ।”

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা