উলুবেড়িয়া বাজারপাড়ার দোকানে চুরির ঘটনার কিনারা পুলিশের, উদ্ধার বহু দামী ফোন ও ক্যামেরা

নিজস্ব সংবাদদাতা : গত ২৩ দিন আগেই বড়সড় চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল উলুবেড়িয়া বাজারপাড়া চত্বরে। সেই চুরির ঘটনার কিনারা করল উলুবেড়িয়া থানার পুলিশ। খোয়া যাওয়া মালপত্রের পাশাপাশি ঘটনার মূল অভিযুক্তক আব্দুর রহিমকে গ্রেফতার করেছে উলুবেড়িয়া থানার পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, গত ২২ শে জুন উলুবেড়িয়া বাজারপাড়া এলাকায় একটি বড়ো ইলেক্ট্রনিক্সের দোকান থেকে বেশ কিছু দামী ফোন, ডিএসএলআর ক্যামেরা ও ডিজিটাল ক্যামেরা চুরি যায়। ঘটনার পরের দিনই উলুবেড়িয়া থানায় দোকান কর্তৃপক্ষের তরফে লিখিত অভিযোগ জানানো হয়। তারপরই তদন্ত শুরু করে উলুবেড়িয়া থানার পুলিশ। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখতে গিয়েই পুলিশ নিশ্চিত হয় ঘটনার সাথে যুক্ত রয়েছে রহিম। কারণ, এর আগেও এই ধরনের ঘটনায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছিল। চুরির ঘটনায় আব্দুর রহিম যে জড়িত সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পরই বুধবার রাতে তার বাড়িতে হানা দেয় উলুবেড়িয়া থানার পুলিশ।

সেখান থেকেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। উদ্ধার হয় চুরি যাওয়া সমস্ত মোবাইল ও ক্যামেরা। আপাতত সে পুলিশি হেফাজতে রয়েছে বলে জানা গেছে। উলুবেড়িয়া থানার আই.সি কৌশিক কুন্ডু বলেন, “গত ২২ শে জুন রাতে রাতে দোকানের কোলাপ্সেবেল গেট ও কাঁচ কেটে মোবাইল এবং ক্যামেরা চুরি করেছিল আব্দুর রহিম। দোকানের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আমরা আমরা সেই বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছিলাম। যখন জানতে পারি সমস্ত মালপত্র আব্দুর রহিমের বাড়িতেই আছে তখনই আমরা তার বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করি এবং চুরি যাওয়া সমস্ত মালপত্র উদ্ধার করেছি।” উল্লেখ্য, গত কয়েক মাস আগে উলুবেড়িয়ার গরুহাটার কাছে একটি বড়ো মোবাইলের দোকান থেকে বেশ কয়েকটি মোবাইল চুরি করেছিল আব্দুর রহিম। পুলিশ তাকে গ্রেফতারের পাশাপাশি তার কাছ থেকে চুরি যাওয়া ৯০% মোবাইল উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছিল। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, চুরির মালপত্র বিক্রি করার সুযোগ পায়নি আব্দুর রহিম। সেই কারণেই তার কাছ থেকে চুরি যাওয়া সমস্ত মালপত্র উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। পাশাপাশি, অন্য কোনো অপরাধের সঙ্গেও আব্দুর রহিম জড়িত রয়েছে কি-না সে বিষয়ে তদন্ত করে দেখছে উলুবেড়িয়া থানার পুলিশ। চুরির ঘটনার একমাসের মধ্যেই কিনারায় খুশি ব্যবসায়ীমহল।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা