সচেতনতায় স্যানিটারি ন্যাপকিন, প্রচারে শ্যামপুরের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন

নিজস্ব সংবাদদাতা: ‘ঋতুস্রাব’ — এই স্বাভাবিক শারীরিক প্রক্রিয়াটি নিয়ে এখনও অনেক মানুষের ছুঁত্‍‌মার্গের শেষ নেই। এখনও বহু মানুষের মধ্যে ঋতুস্রাব সম্পর্কে বিজ্ঞান ভিত্তিক সঠিক ধারণাই তৈরি হয়নি। পরিসংখ্যান বলছে, ভারতে একটা বৃহৎ অংশের মহিলারা কাপড় ব্যবহার করেন। এর জেরে নানা ধরনের রোগের শিকার হন মহিলারা। এবার এই সমস্যা দূর করে প্রত্যন্ত গ্রামের মহিলাদের মধ্যে সচেতনতা গড়ে তুলতে উদ্যোগী হল গ্রামীণ হাওড়ার শ্যামপুরের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘অপরাজেয়’।

সম্প্রতি সংগঠনটির পক্ষ থেকে উলুবেড়িয়ার বাজারপাড়া এবং মহেশপুরের প্রায় ৪০ জন মহিলার হাতে বেশ কিছু  স্যানিটারী ন্যাপকিন  তুলে দেওয়া হল। এর পাশাপাশি, স্যানিটারি ন্যাপকিনের প্রয়োজনীয়তা, ব্যবহারিক সুবিধা সহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোকপাত করেন সংগঠনের সদস্যরা। এমনকি ঋতুকালীন সময়ে কী কী শারীরিক যত্ন নেওয়া উচিত সেগুলি আর্ট পেপারে হাতে লেখা পোষ্টারের সাহায্যে সংগঠনটির সদস্যারা বোঝানোর চেষ্টা করেন।

সংগঠনটির অন্যতম সদস্যা তৃনাঞ্জলী মন্ডল বলেন, “একজন নারী মা হয়ে ওঠে পিরিয়ডের মাধ্যমেই। তাই পিরিয়ডকে অবহেলা করা মানে ভবিষ্যৎকে বিপদের মুখে ফেলা। তাই এব্যাপারে আমাদের সচেতন হতে হবে। কাপড় নয়, স্যানিটারী ন্যাপকিন ব্যবহার করতে হবে।” এহেন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা