উলুবেড়িয়ায় দলীয় কর্মসূচিতে এসে তৃনমূলকে তীব্র ভাষায় আক্রমন শুভেন্দুর

নিজস্ব সংবাদদাতা : উলুবেড়িয়ার রঘুদেবপুরে এক রক্তদান শিবিরে এসে তৃনমূলকে তীব্র ভাষায় আক্রমন করলেন বিজেপি নেতা তথা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। পাঁচলা মোড়ে নামার পর হরিনাম সহযোগে তাকে দলীয় কার্যালয়ে নিয়ে যায় বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। সেখানে তিনি ভারতমাতার ছবির পাশাপাশি শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ও পন্ডিত দিনদয়াল উপাধ্যায়ের ছবিতে মাল্যদান করেন এবং তারপর টিভিতে প্রধানমন্ত্রীর মন কি বাত অনুষ্ঠানের জায়েন্ট স্ক্রিনের মাধ্যমে দেখেন। বিস্তারিত জানতে নীচে পড়ুন…

এই কর্মসূচির মঞ্চ থেকে তিনি বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জানেন তারা যেসব ভোটে জিতেছে তাতে মানুষের রায়ের প্রতিফলন হয়নি, তাই তারা ভয় পাচ্ছে, আমাদের কর্মীদের মিথ্যা কেসে ফাঁসাচ্ছে। তাই এরা দিলীপ ঘোষকে বাঁধা দিচ্ছে, আমাকে বাঁধা দিচ্ছে। কোর্টের অর্ডার থাকা সত্ত্বেও আমাকে নেতাই যেতে বাঁধা দিয়েছে।

অন্যদিকে যে সমস্ত SSC চাকরিপ্রার্থী, যারা কোর্টের অর্ডারে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে অবস্থান করছে, তাদের পিটিয়ে লক‌আপে ঢোকাচ্ছে। তিনি বলেন বিকাশ মিশ্রকে সুস্থ অবস্থায় SSKM এ ফেলে রেখেছে। তাকে জেরা করে বিনয় মিশ্রকে ঢোকাতে হবে আর বিনয় মিশ্র ও সুমিত রায়কে গ্রেফতার করলেই, আমি বলছি এক সেকেন্ডে ভাইপোকে ঢোকানো যাবে। ২০১৪ থেকে এখন পর্যন্ত ২০০০ কোটি টাকা তুলেছে কয়লা থেকে।

তার দাবি ১২ তারিখের ভোটের গননা না করে ২৭ তারিখ ভোটের পর একসাথে করা হোক। শুভেন্দু অধিকারী জানান, উত্তরপ্রদেশে আওয়াজ উঠেছে যোগী, পশ্চিমবঙ্গেও যোগী সরকার দরকার, বাংলাতেও হেমন্ত বিশ্ব শর্মা দরকার, বাংলাকেও একটু ঠিক করা দরকার।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা