কোভিড বিধি মেনেই উলুবেড়িয়ার বিভিন্ন স্কুলে পঠনপাঠন শুরু, খুশি শিক্ষক-পড়ুয়া সকলেই

নিজস্ব সংবাদদাতা : দীর্ঘ প্রায় এগারো মাস পর ফের বই-খাতার ব্যাগ পিঠে নিয়ে স্কুলমুখো পড়ুয়ারা। সরকারি ঘোষণা মতো শুক্রবার থেকেই এরাজ্যের নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর পড়ুয়াদের নিয়ে পঠনপাঠন শুরু হল। বাংলার বিভিন্ন প্রান্তের মতো উলুবেড়িয়ার বিভিন্ন স্কুলেও শুক্রবার পড়ুয়াদের উপস্থিতি ছিল বেশ চোখে পড়ার মতো। তবে ‘নিউনর্মাল’এ বদলেছে অনেক কিছুই।

উলুবেড়িয়ার হীরাপুর হাইস্কুল, কিমবা বাগান্ডা রনমহল কোরানিয়া মাদ্রাসা বা রামচন্দ্রপুর শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ বিদ্যাপীঠ সব জায়গাতেই এদিন কমবেশি একই চিত্র ধরা পড়ল। প্রত্যেক স্কুলেই শিক্ষক-শিক্ষিকা ও পড়ুয়াদের থার্মাল স্ক্যানিং ও হাত স্যানিটাইজ করে তবেই স্কুল চত্বরে প্রবেশ করানো হচ্ছে। নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখেই পড়ুয়াদের শ্রেণীকক্ষে প্রবেশ করানো হচ্ছে। শ্রেণীকক্ষের ভিতরেও কঠোরভাবে মানা হচ্ছে কোভিড বিধি।

প্রতিটি বেঞ্চে নির্দিষ্ট দূরত্ব মেনে দু’জন করে পড়ুয়া বসানো হচ্ছে। এর পাশাপাশি, ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে করোনা নিয়ে সচেতনতার প্রচার চালাতেও শিক্ষক-শিক্ষিকাদের দেখা গিয়েছে। দীর্ঘদিন পর নিজেদের প্রিয় শ্রেণীকক্ষে এসে রীতিমতো উচ্ছসিত পড়ুয়ারা।

তাদের কথায়,”যেন প্রাণ ফিরে পেলাম। বহুদিন বাদে আবার সকলে দেখা হল। ক্লাস করলাম। করোনা কালে নিজেদের অভিজ্ঞতাও একে অপরের সাথে ভাগ করে নিলাম।” বাগান্ডা রনমহল কোরানিয়া মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক আনিসুর রহমান জানান,”সরকারি গাইডলাইন মেনেই আমরা সমস্ত ব্যবস্থা করেছি।” তিনি আরও বলেন,”দীর্ঘদিন পর ক্লাসে আবারও পড়ুয়াদের পেয়ে মনটা খুব খুশি হয়ে গেল।”

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা