জিএসটি’র প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিমার হাতের নকল অস্ত্র তৈরির শিল্প

নিজস্ব সংবাদদাতা : প্রতীক্ষার এক মাস। তার পরেই বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসবে মেতে উঠবে আপামর দেশবাসী। সেই কারণে দেবী দুর্গার হাতের অস্ত্র তৈরীতে ব্যস্ত উলুবেড়িয়ার বোয়ালিয়ার বাউড়িয়া ও শ্যামপুরের গুটিনাগড়ি এলাকার এই নকল অস্ত্র তৈরির কারখানার কারিগররা। দেবী দুর্গার হাতে শোভা পাওয়া খাঁড়া, ঢাল, অঙ্কুশ, ঘন্টা, চক্র, শঙ্খ, গদা, বজ্র অন্যদিকে গনেশের হাতে থাকা গদা, চক্র, শঙ্খ, পদ্ম তৈরী করতে দিন রাত পরিশ্রম করে চলেছেন এই সমস্ত এলাকার ছোটো বড়ো মিলিয়ে প্রায় দশ থেকে পনেরোটি কারখানার শ্রমিকরা। এলাকার সত্তর থেকে আশিটি পরিবারের সংসার চলে এই শিল্পের ভরসায়। কলকাতার বড়বাজার ও মেছুয়া থেকে এক ধরনের পাতলা টিন কিনে নিয়ে এসে সেগুলিকে কাটিং করার পর ডিজাইন ও রঙ করে তৈরি করা হয় এক একটি সেট।

প্যাকিং করার পর সেগুলি পাঠিয়ে দেওয়া হয় কুমারটুলি, বড় বাজার সহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে।এই শিল্পের সাথে যুক্ত এক কারিগর প্রবীর মান্না জানান সারা বছর এই কাজ‌ করেই‌ সংসার চলে। সারা বছর টুকটাক কাজ চললেও পূজোর আগে‌ থেকে কালিপুজো পর্যন্ত কাজের খুব চাপ থাকে। রাত জেগে কাজ করতে হয়। এই শিল্পের সাথে যুক্ত কারখানার মালিক সুজয় অধিকারী জানান কাঁচা মালের উপর জি এস টি চাপায়, মালের চাহিদা থাকলেও মুনাফা অনেক কমে গেছে। তিনি জানান মুনাফা কমে যাওয়ায় ফলে কারিগরদের ঠিক মতো পারিশ্রমিক দিতে পারা যাচ্ছেনা। ফলত কারিগরের অভাব দেখা দিয়েছে। নতুন করে কেউ আর এই শিল্পের সাথে যুক্ত হতে চাইছেনা। ফলত চরম সমস্যায় পড়েছেন তারা।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা