শীতের আগেই সুখবর, গাদিয়াড়ায় আধুনিক বাসস্ট্যান্ডের উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা : নভেম্বর মানেই শীতের শুরু। পরিবেশে হাল্কা ঠান্ডের আমেজও রয়েছে। তারই মাঝে পর্যটনপ্রিয় বাঙালির কাছে সুখবর। বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে খুলে দেওয়া হল রাজ্যের অন্যতম জনপ্রিয় ও গুরুত্বপূর্ণ পর্যটনকেন্দ্র গাদিয়াড়ার নবনির্মিত বাসস্ট্যান্ড। আজ নবান্ন থেকে ভার্চুয়াল মাধ্যমে বাসস্ট্যান্ডটির আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ১ কোটি ১১ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই বাসস্ট্যান্ডটি নির্মাণ করা হয়েছে।পরিবহণ দপ্তরের আর্থিক আনুকুল্যে পঞ্চায়েত সমিতি বাসস্ট্যান্ডটি তৈরি করেছে।

উল্লেখ্য, গত ২০১৭ সালে বাসস্ট্যান্ডটির শিলন্যাস করেছিলেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে এদিন গাদিয়াড়ার নবনির্মিত বাসস্ট্যান্ডে উপস্থিত ছিলেন শ্যামপুর-১ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নাসরিন সেখ, স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান আব্দুর রহমান সহ অন্যান্যরা। বাসস্ট্যান্ডে রয়েছে বিভিন্ন অত্যাধুনিক ব্যবস্থা। রয়েছে বিশ্রামাগার, স্নানাগার, শৌচালয় সহ বিভিন্ন ব্যবস্থা। জানা গেছে, ইতিমধ্যেই গাদিয়াড়া থেকে ধর্মতলা, বসিরহাট, বারাসাত, বিষ্ণুপুর সহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বাস রুট চালু হয়ে গেছে। স্থানীয়দের কথায়, এতোদিন স্থায়ী বাসস্ট্যান্ড না থাকায় রাস্তার ধারেই বাসগুলিকে দাঁড়িয়ে থাকতে হত। এতে যাত্রীদের দুর্ভোগের সম্মুখীন হতে হত। সামনেই পিকনিকের মরশুম আর তার আগেই বাসস্ট্যান্ড চালু হওয়ায় খুশি স্থানীয় মানুষ থেকে ব্যবসায়ী সকলেই।

শ্যামপুরের বিধায়ক কালীপদ মন্ডল বলেন, “গাদিয়াড়ায় আধুনিক মানের বাসস্ট্যান্ড গড়ে তোলার পাশাপাশি গাদিয়াড়াকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে। কর্মব্যস্ত মানুষ যাতে এখানে এসে কিছুটা শান্তিতে কাটিয়ে বাড়ি ফিরতে পারেন তার জন্য পরিকাঠামো গড়ে তুলছে তৃণমূল সরকার।” প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গ্রামীণ হাওড়ার গাদিয়াড়া শুধু জেলা নয় সারা বাংলার অন্যতম অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে বিবেচিত। বছরের বিভিন্ন সময়ের তুলনায় শীতের সময় প্রচুর মানুষ পরিবার, বন্ধুবান্ধব নিয়ে গাদিয়াড়ায় বেড়াতে আসেন। আর শীতের আগেই সরকারি উদ্যোগে গাদিয়াড়ায় নতুন বাসস্ট্যান্ড চালু গাদিয়াড়া জুড়ে খুশির হাওয়া।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা