লটারিতে কোটিপতি! রাতারাতি এক কোটি টাকা জিতলেন হাওড়ার ডোমজুড়ের দুধ বিক্রেতা

নিজস্ব সংবাদদাতা : ডোমজুড় উত্তর ঝাঁপড়দহ গ্রামের শক্তি দাস। পেশায় একটি দুধ কোম্পানির সেলসম্যান। হাড়ভাঙা খাটুনির মধ্য দিয়ে জীবনযুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন বছর পঁয়ত্রিশের শক্তিবাবু। এখন মাসের শেষে হাতে পান মাত্র সাত হাজার টাকা। তাতেই কোনোরকমে সংসার চালান এই সাদামাটা মানুষটি। কিন্তু, তাঁর অভাবের ঘরে যে হঠাৎই আগমন ঘটবে মা লক্ষ্মীর তা কল্পনাই করতে পারেননি শক্তিবাবু।

অন্যান্য দিনের মতোই নেশার বসে গত শনিবার ডোমজুড়ের একটি দোকান থেকে তিনি লটারি কেটেছিলেন। আর সেই লটারিতেই রাতারাতি ‘কোটিপতি’ হয়ে উঠলেন হাওড়ার উত্তর ঝাঁপড়দহ গ্রামের এই ছাপোষা মানুষটি। জানা গেছে, মাস ছ’য়েক আগে থেকেই লটারির টিকিট কাটতে শুরু করেন শক্তিবাবু। কখনো ৬০০ টাকা আবার কখনো বা ৫০০০ টাকা পেয়েছেন।

তবে গত শনিবার সকালে তিনি টিকিট কাটেন। সন্ধ্যাতেই সেই টিকিটের খেলা অনুষ্ঠিত হয়। আর সকাল হতেই সুখবর পৌঁছে যায় শক্তিবাবুর কানে। রাতারাতিই ‘কোটিপতি’ হওয়ার খবরে স্বভাবতই উচ্ছ্বসিত শক্তিবাবু। অর্থাভাবে এখনো সংসার পাতা হয়নি শক্তি দাসের। মা, দাদা-দিদি, ভাইপোদের নিয়েই আপাতত তাঁর দিনযাপন। তবে ‘কোটিপতি’ ছেলের এবার একটা বন্দোবস্ত করতে চান মা ছবিরানি দাস।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা