চলল গুলি! উত্তপ্ত আমতার চন্দ্রপুর, আহত বেশ কয়েকজন, ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী

নিজস্ব সংবাদদাতা : বৃহস্পতিবার সকালে ডাব বিক্রির সময় বিবাদকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়াল গ্রামীণ হাওড়ার আমতার চন্দ্রপুর এলাকায়। হাতাহাতির পাশাপাশি গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। ইতিমধ্যেই পুলিশ এই ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে। এলাকায় মোতায়েন রয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার সকালে চন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্ভুক্ত উত্তর হরিশপুর এলাকায় এক ব্যবসায়ী ডাক বিক্রি করছিলেন। অভিযোগ, ওই বিক্রেতা বেশি দামে ডাব বিক্রি করছিলেন। তা নিয়ে প্রতিবাদ করলে শুরু হয় বচসা। এমনকি তা হাতাহাতির আকার নেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন চন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ-প্রধান সেখ রজব আলি।

অভিযোগ, রজব আলির উপর চড়াও হয় দুষ্কৃতিরা। তাকে কিল-ঘুষির পাশাপাশি রড, ইট দিয়ে মারা হয় বলেও অভিযোগ। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। অভিযোগ, গোলমালের সময়ই হঠাৎই চলে গুলি। গুলি চালানোর জেরে সেখ সারাফত নামক এক স্থানীয় বাসিন্দা আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। তিনি সেই সময় বাজারে যাচ্ছিলেন বলে জানা গেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে নিকটবর্তী চন্দ্রপুর ফাঁড়ির পুলিশ। ঘটনাস্থলে আসে বিশাল পুলিশ বাহিনী। বৃহস্পতিবারের এই ঘটনায় পুলিশ বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে বলে জানা গেছে।

যদিও স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ-প্রধান শেখ রজব আলী এই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল তুলেছেন সিপিএমের দিকে। তার বক্তব্য, এই ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছে সিপিএমের দুষ্কৃতিরা। রজব জানায়, এখানকার বেশ কয়েকটি বাড়ি ও কারখানা থেকে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ। যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্থানীয় সিপিএম নেতৃত্ব। তাঁরা জানান, এটা তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। এর সাথে সিপিএমের কোনোরূপ যোগাযোগ নেই।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা