হাওড়ায় দুটি পৃথক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল তিন বাইক আরোহীর

নিজস্ব সংবাদদাতা : লরির সাথে বাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল দুই বাইক আরোহীর। আহত আরও এক। বুধবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার জগৎবল্লভপুর থানার সন্তোষপুরে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃতদের নাম শেখ শাহনাওয়াজ(১৮) ও শেখ সামসুল(২২)। মৃতরা মুন্সিরহাটের ধসা বিশ্বনাথপুরের বাসিন্দা। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকালে নিজেদের ক্লাবের অনুষ্ঠানে জনৈক ব্যক্তিকে আমন্ত্রণ জানাতে হাওড়া-আমতা রোড ধরে বাইক নিয়ে ডানকুনি যাচ্ছিলেন শাহনাওয়াজরা।

অভিযোগ, সন্তোষপুরের কাছে উল্টোদিকে চলে আসে একটি লরি। লরির সাথে বাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষের জেরে বাইকের তিন সওয়ারী রাস্তায় ছিটকে পড়েন। স্থানীয় মানুষের সহায়তায় পুলিশ আহতদের ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে স্থানীয় গোহালপোতা প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায়। চিকিৎসকরা সামসুল ও শাহনাওয়াজকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আর এক সওয়ারী শেখ সরিফুলকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পিজিতে স্থানান্তরিত করা হয়েছে বলে জানা গেছে। পুলিশ ঘাতক লরি ও তার চালককে আটক করেছে।

অন্যদিকে, গোরুকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল এক বাইক আরোহীর। বুধবার বিকালে ঘটনাটি ঘটেছে গ্রামীণ হাওড়ার উলুবেড়িয়া – শ্যামপুর রোডের পারিজাত এলাকায়। জানা গেছে, মৃতের নাম কাশীনাথ বেরা(৫০)। তিনি বাগনানের বাসিন্দা বলে জানা গেছে। সূত্রের খবর, পেশায় সাইকেল ব্যবসায়ী কাশীনাথ বেরা ব্যবসার কাজ সেরে বাইকে চেপে শ্যামপুর থেকে উলুবেড়িয়ার দিকে ফিরছিলেন।

উলুবেড়িয়ার পারিজাতের কাছে একটি গরু হঠাৎই তার বাইকের সামনে চলে আসে। গরুটিকে বাঁচাতে গেলে বাইকটি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে রাস্তার পাশে থাকা পাঁচিলে ধাক্কা মারে। পুলিশ কাশীনাথ বাবুকে ঘটনাস্থল থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত বলে জানান। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কাশীনাথবাবুর সঙ্গে হেলমেট ছিল। কিন্তু, তিনি সেটা মাথায় না দিয়ে হেলমেটটি বাইকের হ্যান্ডেলে ঝুলিয়ে রেখেছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শীদের আক্ষেপ, মাথায় হেলমেট দেওয়া থাকলে হয়ত মৃত্যুর হাত থেকে হয়তো তিনি বেঁচে যেতে পারতেন।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা