বাগনানে বাঘ আতঙ্ক! জাতীয় সড়কে মানুষের ভিড়, ভুল ভাঙালেন পরিবেশকর্মীরা

নিজস্ব সংবাদদাতা : কথিত আছে, বাগনানে একসময় নাকি বাঘ থাকত। নদীর চরভূমিতে অবাধে বিচরণ করত বাঘ। এই কাহিনির সত্যতা নিয়ে অনেক প্রশ্ন রয়েছে। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকাল সকাল হঠাৎই খবর ছড়িয়ে পড়ে বাগনান কাপালিপাড়ায় ১৬ নং জাতীয় সড়কের ধারে আহত অবস্থায় পড়ে রয়েছে বাঘের মতো দেখতে একটি প্রাণী। খবর পেয়েই জাতীয় সড়কের পাশে আহত অবস্থায় পড়ে থাকা প্রাণীটিকে দেখতে ছোটেন কয়েক’শো মানুষ। মুহুর্তের মধ্যেই হাইরোডের উপর ভিড় জমে যায়। ছড়িয়ে পড়ে বাঘ আতঙ্ক। খবর পেয়েই দ্রুত ঘটনাস্থলে আসেন বাগনান-১ পঞ্চায়েত সমিতির বন ও ভূমি কর্মাধ্যক্ষ তথা পরিবেশ কর্মী চন্দ্রনাথ বসু ও বন্যপ্রাণ সংরক্ষক চিত্রক প্রামাণিক। তাঁরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে উপস্থিত উৎসুক জনতার ভুল ভাঙিয়ে জানান,’এটি বাঘ নয়, বাঘরোল’। ততক্ষণে ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছায় বাগনান থানার পুলিশ। খবর দেওয়া হয় বন দপ্তরে। বিস্তারিত জানতে নীচে পড়ুন…

বন দপ্তরের কর্মীরা এসে পূর্ণ বয়স্ক বাঘরোলটিকে উদ্ধার করেন। বাঘরোলটির পায়ে চোট রয়েছে বলে জানা গেছে। চন্দ্রনাথ বসু জানান, সকালে খবর পাই বাগনান কাপালিপাড়ায় হাইরোডের উপর নাকি বাঘের মতো দেখতে একটি প্রাণী পড়ে রয়েছে। শুনেই বুঝে যাই এটা বাঘ নয়, বাঘরোল। সাথে সাথে চিত্রককে নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে মানুষের ভুল ভাঙি।” প্রাথমিক অনুমান, রাতের অন্ধকারে বা ভোররাতে রাস্তা পারাপার করতে গিয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে প্রাণীটি। বন্যপ্রাণী সংরক্ষক চিত্রক প্রামাণিক বলেন,”আমাদের রাজ্যপ্রাণী বাঘরোলকে নিয়ে এখনো আমাদের সমাজে অনেক ভুল ধারণা রয়েছে। ভুল ভাঙাতেই আমরা লাগাতার প্রচার চালিয়ে যাচ্ছি। আজও বাগনানে ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে সেই সচেতনতার কাজই করলাম।”

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা