পদ খুইয়ে স্থানীয় বিধায়কের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন উলুবেড়িয়া উত্তরের তৃণমূলের সদ্য ‘প্রাক্তন’ সভাপতি

নিজস্ব সংবাদদাতা : বুধবারই সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে হাওড়া গ্রামীণ জেলার বিভিন্ন বিধানসভার সাংগঠনিক কমিটির সভাপতিদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। উলুবেড়িয়া উত্তর বিধানসভা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে তপন চক্রবর্তীকে। তার জায়গায় নতুন সভাপতি করা হয়েছে জেলা পরিষদ সদস্য বিমল দাসকে। পদ খুইয়ে স্থানীয় বিধায়কের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন সদ্য ‘প্রাক্তন’ সভাপতি তথা আমতা-১ পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ তপন চক্রবর্তী। তপন চক্রবর্তীর অভিযোগ,”এই কমিটিটা বিধায়ক নির্মল মাজি সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তার ব্যক্তিস্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য করেছেন।” বিস্তারিত জানতে নীচে পড়ুন…

তার অভিযোগ, এক বছর ধরে উলুবেড়িয়া উত্তরে সংগঠন বলে কিছু নেই। ২০২১ সালে বিধায়ককে আমরা জিতিয়েছিলাম। কিন্তু সেসবকে ধূলিস্যাৎ করে ভালো করে কথা বলতে পারে না সিপিএম থেকে আসা থাকা লোকেদের নিয়ে এই কমিটি করা হয়েছে।” হাওড়া জেলা কিষাণ ক্ষেত মজদুর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন তপন চক্রবর্তী। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে ইতিমধ্যেই সেই পদ ছাড়তে চেয়ে ইস্তফাপত্র পাঠিয়েছেন সংগঠনের রাজ্য সভাপতি পূর্ণেন্দু বসুকে। তপন চক্রবর্তী জানান, দল সংগঠনকে গুরুত্ব দেয়না। আমার এলাকা তথা উলুবেড়িয়া উত্তরে সংগঠন করার মতো উপযুক্ত পরিবেশ নেই। তাই বীতশ্রদ্ধ হয়ে পদত্যাগ করলাম। ইতিমধ্যেই তিনি হোয়াটসঅ্যাপ মারফত পূর্ণেন্দু বসুকে ইস্তফাপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন বলে তপন চক্রবর্তী জানান। যদিও এসব বিষয়ে গুরুত্ব দিতে নারাজ নতুন সভাপতি বিমল দাস। বিমল দাস জানান, দল আমায় যে দায়িত্ব দিয়েছে তা সকলকে নিয়ে পালন করার চেষ্টা করব।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা