লকডাউনে বন্ধ কাজ, অসহায় পরিচারিকাদের পাশে এগিয়ে এলেন বাগনানের গৃহবধূ

নিজস্ব সংবাদদাতা : একদিকে লকডাউন আর অন্যদিকে করোনার ত্রাস – দু’ই গেরোয় কার্যত নাস্তানাবুদ অবস্থা দিন আনা দিন খাওয়া পরিচারিকাদের। দীর্ঘদিন বহু পরিচারিকার কাজ বন্ধ। আবার অন্যদিকে লকডাউন শেষে কাজ হারাবার ভয়। আর তাতেই ঘুম উড়েছে বহু পরিচারিকার। এমতাবস্থায় কোনোরকমে রেশনের চালে দিন কাটছে। কারো কারো ক্ষেত্রে পাড়ার ক্লাবের ত্রাণ মিললেও তা যৎসামান্য। এই পরিস্থিতিতে কীভাবে সংসার চলবে তা নিয়ে মনে যখন সংশয়ের কালো মেঘ জমাট বেঁধেছে তখনই তাঁদের পাশে এগিয়ে এলেন গ্রামীণ হাওড়ার বাগনান থানার হিজলক গ্রামের এক গৃহবধূ। সূত্রের খবর, হিজলক গ্রামের বাসিন্দা চৈতালি মাজি নিজ হাত খরচ ও সংসার খরচ বাঁচিয়ে এলাকার ২৭ জন পরিচারিকার হাতে তুলে দিলেন নগদ ২৫০ টাকা, একটি করে সাবান, মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার। চৈতালি দেবীর কথায়, “এই দুঃসময়ে ওদের অনেকেরই কাজ বন্ধ। তাই জুটছেনা বেতন। কোনোরকমে সংসার চলছে ওদের। একদিকে ওদের পাশে দাঁড়াতে ও অন্যদিকে সচেতনতা গড়ে তুলতেই আমার এই প্রয়াস।” এর পাশাপাশি চৈতালি দেবী জানান, “মাস্ক,স্যানিটাইজার ও সাবান দেওয়ার সাথে সাথে ওদের প্রত্যেককে এই জিনিসগুলোর গুরুত্ব বোঝানোর চেষ্টা করেছি। অনুরোধ করেছি নিয়মিত ব্যবহার করার।” বাগনানের গৃহবধূর এহেন উদ্যোগে স্বভাবতই খুশি পরিচারিকারাও। তাঁদের কথায়, “আমরা কাজের মেয়ে বলে কেউ আলাদা করে আমাদের কথা ভাবেনি। উনি আমাদেরকে নিয়ে যে ভেবেছেন তাতেই আমরা খুশি। আমরাও ক্রমশ সচেতন হচ্ছি।”

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা