ছিনতাইয়ে বাধা! উলুবেড়িয়ায় গুলিবিদ্ধ যুবক, পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন

নিজস্ব সংবাদদাতা : বাইক ছিনতাইয়ে বাধা দেওয়ায় এক যুবককে গুলি করল দুষ্কৃতিরা। রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে গ্রামীণ হাওড়ার উলুবেড়িয়া থানার বীরশিবপুর এলাকায়। জানা গেছে, গুলিবিদ্ধ যুবকের নাম পিনাকি দাস। তিনি পাঁচলার রানিহাটি এলাকার বাসিন্দা। জানা গেছে, পেশায় সিভিল ইঞ্জিনিয়ার পিনাকি রবিবার রাত ১০ টা নাগাদ বাড়ি ফিরছিলেন। পাঁচলা মোড়ের কাছে এসে তিনি বুঝতে পারেন তাঁর মানিব্যাগ হারিয়ে গিয়েছে। মানিব্যাগে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি ছিল।

তিনি সঙ্গে সঙ্গে উলুবেড়িয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করার সিদ্ধান্ত নেন। সেই মোতাবেক তিনি উলুবেড়িয়া থানার উদ্দেশ্যে রওনা দেন। কিন্তু রাতের অন্ধকারে তিনি থানার রাস্তা ভুল করে ১৬ নং জাতীয় সড়ক ধরে বীরশিবপুরে পৌঁছে যান। বীরশিবপুরে গাড়ি থামিয়ে নিজের ফোনে ক’টা বাজে তা দেখেন পিনাকি।

অভিযোগ, সেই সময় বাইকে চেপে দুই দুষ্কৃতি এসে পিনাকিকে বন্দুক দেখিয়ে বাইক সহ তাঁর কাছে থাকা অন্যান্য সামগ্রী ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। পিনাকি তার হাত দিয়ে বন্দুক ধরে নেওয়ার চেষ্টা করলে দুষ্কৃতিরা গুলি চালায় বলে অভিযোগ। জানা গেছে, একটি গুলি পিনাকির বাইকের টাঙ্কে লাগে। শুরু হয় ধস্তাধস্তি। দুষ্কৃতীরা আবারও দুটি গুলি চালায়। একটি গুলি লাগে এই সিভিল ইঞ্জিনিয়ারের কাঁধে, অপর একটি গুলি লাগে তাঁর পিঠের উপরে। তাতেও অবশ্য দমেননি পিনাকি। আবারও ধরার চেষ্টা করেন দুষ্কৃতীদের। অবস্থা বেগতিক দেখে দুষ্কৃতিরা চম্পট দেয়। পরে কোনোরকমে গাড়ি ঘুরিয়ে কিছুটা এসে পরিবারের সদস্যদের ফোন করলে তাঁকে উলুবেড়িয়া হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখান থেকে তাঁকে কোলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়। গুলিবিদ্ধ

যুবকের পরিবারের অভিযোগ, এই ঘটনায় উলুবেড়িয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করতে এলে তাদের বেশ কিছুক্ষণ জেরার মুখে পড়তে হয়। গ্রামীণ হাওড়ার উলুবেড়িয়া সহ বেশ কয়েকটি থানা এলাকায় ১৬ নম্বর জাতীয় সড়কে প্রায়শই এই ধরনের ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে। ফলে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা