হোয়াটস অ্যাপে প্রমিককে ছবি পাঠিয়ে আত্মঘাতী হলেন কলেজের অধ্যাপিকা

নিজস্ব সংবাদদাতা : প্রেমিককে হোয়াটসঅ্যাপে ছবি পাঠিয়ে আত্মঘাতী হলেন প্রেমিকা।এই প্রেমিকা একজন কলেজ শিক্ষিকা।একসঙ্গে মেলামেশা, ঘুরতে যাওয়া, রেস্টুরেন্টে খাওয়া দাওয়া। কিন্তু বিয়ের করার কথা বললেই বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে বসতেন প্রেমিক। এই নিয়েই ঝামেলার সূত্র। দীর্ঘ দিন ধরে বিয়ে করার কথা বলে প্রেমিককে রাজি না করাতে পেরে হোয়াটসঅ্যাপে ছবি পাঠিয়ে আত্মঘাতী হলেন কলেজের অধ্যাপিকা। মৃতার নাম শুভ্রা মণ্ডল, বীরভূমের সিউড়ির ডাঙ্গাল পাড়ার বাসিন্দা তিনি। বিদ্যাসাগর কলেজের জিওলোজি ডিপার্টমেন্টে আংশিক সময়ের জন্য অধ্যাপিকা।পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, শুভ্রার সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ছিল বীরভূমের করিধ্যার বাসিন্দা সুমন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে। দীর্ঘদিন ধরে শুভ্রা – সুমনকে বিয়ে করার কথা বলে কিন্তু সুমন বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে রাজি হচ্ছিলেন না। এই নিয়ে দুজনের মধ্যে সমস্যা সৃষ্টি হয়। রবিবার রাতেও এই নিয়ে শুভ্রা – সুমনের বচসা বাঁধে বলে শুভ্রার পরিবারের দাবি। কিন্তু এই ধরনের ঝামেলা তাঁদের মাঝে মধ্যেই হত। তাঁরা ভেবেছিলেন সমস্যা মিটে যাবে। রবিবার রাতে খাওয়ার পর নিজের ঘরে চলে যান শুভ্রা। পরে দীর্ঘক্ষণ দরজা না খোলায় বাড়ির লোকজনদের সন্দেহ হয়। রাত্রে দরজা খুলে শুভ্রাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান, তাঁকে সিউড়ী হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষনা করে চিকিৎসকরা। শুভ্রার পরিবার সুমন চট্টোপাধ্যায়ের নামে থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করে। করিধ্যার বাড়ি থেকে সুমনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *