উত্তাল রূপনারায়ণের বুক থেকে ভেসে উঠল ‘নৃত্যকালী’, মুহুর্তের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল

নিজস্ব সংবাদদাতা : একদিকে প্রবল বর্ষণ ও অন্যদিকে ভরা কোটালের জেরে রূপনারায়ণ ফুলে ফেঁপে উঠেছে। রূপনারায়ণের এহেন ভয়ংকর রূপ দেখে আট থেকে আশি সকলেই প্রায় আঁতকে উঠছেন। এমনই এক সময়ে রূপনারায়ণের বুক থেকে ভেসে উঠলেন দেবী কালী। তাও আবার নৃত্যরত।বলা যায় নৃত্য কালী। কোলাঘাটের বাসিন্দা পেশায় স্কুল শিক্ষক শুভজিৎ সরকার সেই মূর্তি সহ প্রাপক ব্যক্তির একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন। সেই পোস্ট মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়।

সূত্রের খবর, গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১ টা’র পর কোলাঘাট বাবুয়ার অন্তর্গত দেনান এলাকার চিতাশাল ল্যান্ড রেজিস্ট্রি অফিসের সামনের এলাকা রূপনারায়ণের জোয়ারের জলে প্লাবিত হয়ে যায়। মহেশ্বর জানা স্থানীয় এক ব্যক্তি ওই স্থানে প্রথমে একহাত ভাঙা অবস্থায় নটরাজ ভঙ্গিতে নৃত্যরতা দেবী কালীর একটি মূর্তি উদ্ধার করেন। পরে হাত দশেক দূরে ক্রমে ভাঙা হাত ও মুকুট পাওয়া যায়।

শিক্ষক শুভজিৎ সরকার জানিয়েছেন, “অমাবস্যা, ভারী নিম্নচাপ ও প্রবল বর্ষণে রূপনারায়ণ নদীর জল ভয়ঙ্কর ভাবে ফুলে উঠে আশপাশের অনেক এলাকাই ভাসিয়ে নিয়ে গিয়েছিল। রাস্তার ধারের সমস্ত দোকানপাট ও সব ঘরবাড়ি জলমগ্ন হয়ে পড়েছিল। এই বিপর্যয় শুধুই কোলাঘাটে নয়, রূপনারায়ণ নদীর তীরবর্তী সমস্ত এলাকাতেই হয়েছে। সেই রকমই কোনও এক এলাকার কোনও এক মন্দির অথবা কারও বাড়ি থেকে এই অনির্বচনীয় কাঠের মাতৃমূর্তিটি জোয়ারের জলে ভেসে আসে এবং কোলাঘাটের দেনান এলাকার সামন্তপাড়ার কিছু মানুষজন সেটি জল থেকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করেন। জলে ভেসে আসার সময় কোনও ভাবে মাতৃমূর্তির বামদিকের ওপরের হাতটি জখম হয় এবং পরে এলাকাবাসীর উদ্যোগেই তার আপাত মেরামতি করা হয়।”

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা