প্রেমের টানে মেক্সিকো থেকে হাওড়ায় এলেন তরুণী, সাত পাকে ঘোরা সময়ের অপেক্ষা

নিজস্ব সংবাদদাতা : ‘আমি দূর হতে তোমারেই দেখেছি, আর মুগ্ধ হয়ে চোখে চেয়ে থেকেছি’ — বছর দেড়েক আগে সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মেই পরিচয়। আর সেই পরিচয়েই একে অপরের প্রতি মুগ্ধ হয়েছিলেন। বন্ধুত্ব পরিণত হয়েছিল প্রেমে। আর এবার প্রেমের টানে সুদূর মেক্সিকো থেকে হাওড়া ছুটে এলেন তরুণী। দূরত্ব, ভাষার ব্যবধান ঘুচিয়ে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন হাওড়ার অরিজিৎ ভট্টাচার্য ও মেক্সিকোর লেসলি দেলগাডো। জানা গেছে, বছর দেড়েক আগে সারা বিশ্বজুড়ে যখন করোনার দাপট তুঙ্গে, সংক্রমণে রাশ টানতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে লকডাউন চলছে, সেই সময় একটি ডেটিং অ্যাপে মেক্সিকো সিটির বাসিন্দা লেসলি দেলগাডোর সাথে হাওড়ার বালির বাসিন্দা অরিজিতের পরিচয় ঘটে। বিস্তারিত জানতে নীচে পড়ুন...

লেসলি খুব একটা ইংরেজি না জানলেও অরিজিতের খুব একটা সমস্যা হয়নি। সেই আলাপ গভীর প্রেমে পরিণত হতে বেশি সময় লাগেনি। আন্তর্জাতিক উড়ানে বিধিনিষেধ উঠে যেতেই সুদূর মেক্সিকো থেকে হাওড়ায় উড়ে এসেছেন লেসলি। বালির দুর্গাপুর সাহেববাগান এলাকার ভট্টাচার্য পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ১৯ শে জুন অরিজিৎ ও লেসলির ম্যারেজ রেজিস্ট্রি হয়েছে। জুলাই মাসে সামাজিক দু’জনের সামাজিক বিয়ে হবে বলেও জানা গেছে। পেশায় তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী আপাতত লেসলিকে নিয়ে অক্টোবর অব্ধি এখানেই থাকবেন। তারপর তিনি সদ্য বিবাহিতা বউকে নিয়ে শ্বশুরবাড়ির দেশ মেক্সিকোয় যাবেন। সেখানেও লেসলির পরিবারের তরফে সামাজিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে বলে জানা গেছে।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা