চলে গেলেন শৈশবের ধ্রুবতারা, ‘দ্য গ্রেট’ নারায়ণ দেবনাথ

বিশেষ প্রতিবেদন : বছর আঠারো পিছিয়ে যাওয়া যাক। তখনও হাতে হাতে মুঠোফোন আসেনি, ঘরে ঘরে ল্যাপটপ কিমবা কম্পিউটারেরও আবির্ভাব ঘটেনি। তখন সবে আমার শৈশব। সেসময়ে শৈশবের সঙ্গী বলতে ছিল শৈশবের নাম না জানা খেলাধুলা আর ‘হাঁদা’, ‘ভোঁদা’, ‘বাঁটুল’, ‘নন্টে’, ‘ফন্টে’রা। কখনো সাদাকালো টিভির পর্দায় আবার কখনো বা বাড়িতে আসা সাপ্তাহিক ম্যাগাজিনে এঁদের সাথে পরিচয় ঘটা। এগুলোর স্রষ্টা কে তা সম্পর্কে সেভাবে ধারণা ছিলনা। বিস্তারিত জানতে নীচে পড়ুন…

শৈশব কাটিয়ে যখন কৈশোরের পথে পা বাড়াচ্ছি এমনই এক সময়ে খবরের কাগজের একটি প্রতিবেদন থেকে জানলাম ‘বাঁটুল দ্য গ্রেট’এর স্রষ্টাকে। এরপর একে একে জানলাম শিল্পীর বৃহৎ জগত সম্পর্কে। এক সাক্ষাৎকারে নারায়ণ বাবু জানিয়েছিলেন, তিনি দুষ্টু ছেলেপুলেদের ভীষণ ভালোবাসতেন। আর তাঁদের নিজের মনের মাধুরি মিশিয়ে রং, তুলির মাধ্যমে এক-একটা চরিত্র রূপে উপস্থাপন করতেন। দুষ্টু ছেলেপুলেদের শৈশবের দস্যিপনাগুলোই স্থান পেত ‘কেল্টু’, ‘নন্টে’, ‘ফন্টে’র মতো মজাদার চরিত্রে। শিল্পী ছোটোদের এতোটাই ভালোবাসতেন যে জীবন সায়াহ্নে এসেও তাঁদের ভালোবেসে কাঁপা হাতেও রং, তুলি ধরতেন। অসুস্থ শরীরেও তাঁদের নিয়ে আঁকার কাজ চালিয়ে যেতেন। বরাবরই তিনি প্রচারবিমুখ। কাজের মধ্যেই নিজেকে নিয়োজিত রাখতে ভালোবাসতেন।

নিজের ভাবনা ও সৃষ্টির মধ্য দিয়ে দীর্ঘ প্রায় সাত দশকের বেশি সময় ধরে মাতিয়ে রেখেছিলেন বাংলার আবালবৃদ্ধবনিতাকে। আর এভাবেই তিনি হয়ে উঠেছিলেন বাংলার চিত্রনাট্য বা কমিকস জগতের প্রাণপুরুষ। বাঙালির শৈশব, কৈশোর জুড়ে নারায়ণ বাবুর ‘নন্টে’, ‘ফন্টে, ‘বাঁটুল’, ‘হাঁদা’ ভোঁদা’রা বিচরণ করে। আজ মুঠোফোনের জগতে নতুন প্রজন্ম অনেকটাই চিত্রনাট্য বিমুখ। ফ্রি-ফায়ার, ক্যান্ডি ক্র‍্যাশের মতো গেম কিমবা ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ইন্সটাগ্রাম নতুন প্রজন্মকে গ্রাস করলেও গ্রাস করতে পারেনি নারায়ণ বাবুর সৃষ্টিকে।

তাইতো সৃষ্টির ষাট বছর পরেও আজও পাঠক সমাজে সমানভাবে জনপ্রিয় হাঁদা-ভোঁদা। বুড়ি পিসি, শাকরেদ লম্বকর্ণ, ভজা-গজা, উটো, ভেদোদের নিয়ে বাঁটুল এখনও বাংলা কমিকসের ইতিহাসে অবিসংবাদিতভাবে সত্যিই ‘দ্য গ্রেট’। কালের অমোঘ নিয়মে শিল্পী তাঁর অজস্র শিল্পকর্ম আর অগণিত শিল্প অনুরাগীকে রেখে অনন্তলোকের পথে পাড়ি দিলেন। বাঙালির হৃদয়ে রেখে গেলেন এক নস্টালজিয়াকে। যতদিন বাঙালি থাকবে, যতদিন বাংলার শিশুসাহিত্য থাকবে ঠিক ততদিনই বাংলার শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতির আকাশে ধ্রুবতারা হয়ে জ্বলজ্বল করবেন আপামর বাঙালির শৈশবের সঙ্গী ‘পদ্মশ্রী’ নারায়ণ দেবনাথ।

Author: নিজস্ব সংবাদদাতা